প্রেম করে বিয়ে: ৫ মাসের মাথায় লাশ হলো মীম

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত মে ২৭ বৃহস্পতিবার, ২০২১, ১০:৪৬ অপরাহ্ণ
প্রেম করে বিয়ে: ৫ মাসের মাথায় লাশ হলো মীম

নিজস্ব প্রতিবেদক>> ফরিদপুরের নগরকান্দায় প্রেম করে বিয়ে করার ৫ মাস পর লাশ হয়েছে এক তরুণী। শশুরবাড়ির লোকদের দাবি আত্মহত্যা আর মেয়ের পিতার দাবি খুন। লাশ হওয়া মীম আক্তার (১৭) নামে ওই তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

 

বৃহস্পতিবার (২৭ মে) সকালে উপজেলার ডাঙ্গী ইউনিয়নের গোয়াইলপোতা গ্রামের স্বামীর বাড়ি থেকে এ লাশ উদ্ধার করা হয়। মীম ওই ইউনিয়নের শংকরপাশা গ্রামের আঃ রব হাওলাদারের মেয়ে।

 

জানা গেছে, ৫ মাস পূর্বে গোয়াইলপোতা গ্রামের রশিদ মৃধার ছেলে বাবু মৃধার সাথে মীমের বিবাহ হয়। বাবু মৃধা ও মীম কৃপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে একই সাথে দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ছিলো।

 

 

দু’জনে এক সঙ্গে স্কুলে আসা যাওয়ায় তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরে বিয়ের বয়স না হলেও দুই পরিবার মিলে বিয়ে দিয়ে আবদ্ধ করে দেন তাদের।

 

বাবু মৃধার ভাবী ইভা বেগম জানায়, বুধবার রাতে ফজর আজানের পর আমি ঘুম থেকে উঠে বের হয়ে দরজার সামনে আম গাছে মীমকে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলতে দেখি।

 

আমার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে ওকে মাটিতে নামায়। তখন ও জীবিত ছিল। আমরা তেল পানি মাথায় দিয়ে ডাক্তারের কাছে নেওয়ার প্রস্তুতি নেই। এরই মধ্যে মীম মারা যায়।

 

মীমের পিতা রব হাওলাদার অভিযোগ করে বলেন, আমি গরীব মানুষ। এলাকার মুরুব্বিদের পরামর্শে এ বিয়েতে রাজী হয়েছিলাম। আমার মেয়েকে ওরা খুন করে ফেলেছে। বাবু মৃধা পলাতক থাকায় তার বক্তব্য জানা যায়নি।

 

নগরকান্দা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সেলিম রেজা বিপ্লব বলেন, অভিযোগ পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে হত্যা না আত্মহত্যা জানা যাবে। সে অনুযায়ী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]