ঝালকাঠিতে এসআই ভাসুরের পেনশনে বাধা দিতে ছোট ভাইয়ের স্ত্রীর ‌‘ছিনতাই নাটক’

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত জুন ৫ শনিবার, ২০২১, ০৭:১০ অপরাহ্ণ
ঝালকাঠিতে এসআই ভাসুরের পেনশনে বাধা দিতে ছোট ভাইয়ের স্ত্রীর ‌‘ছিনতাই নাটক’

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ঝালকাঠি শহরের পালবাড়ি এলাকার বাসিন্দা এবং পটুয়াখালী জেলা পুলিশে টিএসআই পদে কর্মরত মো. কামাল হোসেন ওরফে হাকিম খানের বিরুদ্ধে মিথ্যা ছিনতাইয়ের অভিযোগ দিয়েছেন প্রতিপক্ষরা। কামাল হোসেন চাকরির মেয়াদ শেষে যেন অবসরভাতা সুবিধা পেতে হয়রানির শিকার হন সেজন্য এই মিথ্যা অভিযোগ দেয়া হয়েছে। টিএসআই কামাল হোসেনের ছোট ভাইয়ের স্ত্রীর বিরুদ্ধে এ অভিযোগ আনা হয়েছে।

কামাল হোসেন ওরফে হাকিম খানের স্ত্রী পাপিয়া সুলতানা শনিবার (৫ জুন) সংবাদ সম্মেলন করে এ অভিযোগ করেন। বেলা ১১টায় অনুষ্ঠিত এ সংবাদ সম্মেলনে মেয়ে শাইমিন আক্তার এনি, শারমিন খান নিপা, ছেলে মাহফুজুর রহমানসহ আত্মীয়-স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন।

লিখিত বক্তব্যে পাপিয়া সুলতানা অভিযোগ করেন, মো. কামাল হোসেন ওরফে হাকিম খান ১৯৮৫ সালে পুলিশ বাহিনীতে যোগদানের পর থেকে সুনামের সঙ্গে দায়িত্বপালন করে উত্তরোত্তর সফলতা অর্জন করেছেন। তার বিরুদ্ধে বাহিনীর শৃঙ্খলাপরিপন্থী কোনো অভিযোগও নেই পুলিশ বিভাগে। তবে পারিবারিক জমি-সংক্রান্ত বিরোধে তারই আপন ছোটভাই হারুন অর রশিদ আইজি, ডিএমপি কমিশনার, ডিআইজি, এসপি, ঢাকা সিকিউরিটি সেল বরাবরে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানি করেন। বিভাগীয় তদন্তে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় দায় থেকে তাকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

তিনি বলেন, হারুন অর রশিদ গত বছরের জুলাই মাসে মারা গেলে তার স্ত্রী গত মার্চ মাসে ছিনতাইয়ের ঘটনা সাজিয়ে থানায় অভিযোগ দেন। থানা পুলিশের তদন্তে তা মিথ্যা প্রমাণিত হওয়ায় অবিযোগটি গ্রহীত হয়নি। দুই মাস পর ঝালকাঠি আদালতে সিআর মামলা (নং-১৩৬/২১) দায়ের করেন হারুন অর রশিদের স্ত্রী। মামলার কপি পটুয়াখালী পুলিশ সুপার বরাবরেও পাঠানো হয়েছে। মো. কামাল হোসেন ওরফে হাকিম খানের সুখ্যাতি ও সুনাম নষ্ট করে চাকরি জীবনের শেষে অবসরকালীন ভাতা পেতে বিঘ্ন সৃষ্টি করার মানসিকতায় তিনি এ ধরনের জাতীয় ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে

মিথ্যা অভিযোগ প্রত্যাহারসহ যথাযথ প্রতিকার পেতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন পাপিয়া সুলতানা।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]