পটুয়াখালীতে মাদ্রাসাশিক্ষককে মাথা ন্যাড়া করে নির্যাতন

Barisal Crime Trace -FF
প্রকাশিত জুলাই ৭ বৃহস্পতিবার, ২০২২, ১২:০৪ অপরাহ্ণ
পটুয়াখালীতে মাদ্রাসাশিক্ষককে মাথা ন্যাড়া করে নির্যাতন

স্টাফ রিপোর্টার, বাউফল : পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলায় শিক্ষার্থী ভর্তি নিয়ে বিরোধের জেরে মাদ্রাসাশিক্ষক হাফেজ মনিরুল ইসলামকে মাথা ন্যাড়া করে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে আরেক শিক্ষক মাওলানা আনিচুর রহমানের বিরুদ্ধে। বুধবার ফেসবুকে এই নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল হয়।

মাথা ন্যাড়া করে নির্যাতনের বিষয়ে স্থানীয়রা জানান, হাফেজ মনিরুল ইসলাম বাউফল পৌর শহরের মদিনাতুল উলুম নুরানি হাফেজিয়া ক্যাডেট মাদ্রাসার শিক্ষকের চাকরি থেকে ইস্তফা দিলে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক মাওলানা আনিচুর রহমানের সঙ্গে বিরোধ দেখা দেয়। সম্প্রতি কয়েক শিক্ষার্থী মনিরুলের নতুন প্রতিষ্ঠান চাঁদপুর সদরের লাউতলী জামিয়া মদিনাতুল উলুম মাদ্রাসায় ভর্তি হলে বিরোধ চরমে ওঠে।

আনিচুরের ধারণা, মনিরুল অভিভাবকদের ফুসলে শিক্ষার্থীদের চাঁদপুরের মাদ্রাসায় নিয়ে যাচ্ছেন। এরই জেরে গত রোববার অভিভাবক পরিচয় দিয়ে কয়েক শিক্ষার্থী দেওয়ার জন্য ফোন করে মনিরুলকে বাউফলের কালিশুরী এলাকায় ডেকে নেন আনিচুর। সেখানে একটি মাদ্রাসায় আটকে রেখে আনিচুর, মাওলানা জসিম উদ্দিনসহ কয়েকজন তাঁকে মারধর করেন। এক পর্যায়ে মাথা ন্যাড়া করে ছেড়ে দেন। পরে এই ঘটনার ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

নির্যাতিত মাদ্রাসাশিক্ষকের ফোন নম্বরে কল দিলে বন্ধ পাওয়া যায়। অন্যদিকে, আনিচুর রহমান পলাতক থাকায় তাঁর বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

বাউফল থানার ওসি আল মামুন জানান, ভিডিও দেখে দুপুরে মদিনাতুল উলুম নুরানি হাফেজিয়া ক্যাডেট মাদ্রাসায় অভিযান চালানো হয়। তবে অভিযুক্তরা আগেই পালিয়ে গেছেন।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]