কলাপাড়ায় শ্বাশানের জমি দখল করে দোকান ঘর তােলার পায়তারা’র অভিযোগ

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত জুন ৯ বুধবার, ২০২১, ০৬:৫৯ অপরাহ্ণ
কলাপাড়ায় শ্বাশানের জমি দখল করে দোকান ঘর তােলার পায়তারা’র অভিযোগ

কলাপাড়া প্রতিনিধি।। কলাপাড়া পৌর শহরের শ্বাশানের জমি দখল করে দোকান ঘর তােলার পায়তারা।
এবং শ্বাশান সংস্কার করতে গেলে বাধা ও  প্রাণনাশের হুমকি দেয়ার অভিযোগ।

এঘটনায় মঙ্গলবার (৮ জুন) কলাপাড়া থানা এবং এর আগে ৩১ মে পারিবারিক শশ্মশান উন্মোক্ত করে সংস্কারের জন্য পৌরসভায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন পৌর শহরের ১ নং ওয়ার্ডের নাচনাপাড়ার স্থায়ী বাসিন্দা বিধান বিশ্বাস। মঙ্গলবার দুপুরে কলাপাড়া থানার পুলিশ পরিদর্শন করেছেন।

ওই অভিযোগে উল্লেখ করেছেন, শান্তি রঞ্জন হাওলাদার, পিতা-মৃত নগেন চন্দ্র হাওলাদার , সাং-নাচনাপাড়া, তিনি আমার প্রতিবেশী। তার সাথে দীর্ঘ দিন ধরে আমার জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরােধ চলছে।

মৌজা-খেপুপাড়া, জেএল নং-০৬, খতিয়ান নং -৩৭৮, মেটি জমি- ২.০০ শতাংশ দাগ নং-২৫১ এর সম্পত্তিতে আমাদের পারিবারিক শ্বাশন রয়েছে।

আমার ঠাকুর দাদা মৃত রাম চরণ বিশ্বাস এর শ্মশান নাচনাপাড়া ফেরীঘাট সংলগ্ন শান্তি রঞ্জন হাওলাদারের দোকানের পিছনে পরিত্যাক্ত অবস্থায় পরে আছে। আমার বাবা মৃত্যুবরন করার পূর্বে ওই শ্মশান আমাকে সংস্কার করার কথা বলে যান।

আমি আমার বাবার মৃত্যুর পর পরই আমার ঠাকুর দাদার ওই শ্মশানটি সংস্কার করার জন্য চেষ্টা করছি। সেখানে দেখা যায় শান্তি রঞ্জন হাওলাদার শ্মশানটির উপর টিনের দোকান ঘর করে ভাড়া দিচ্ছে।

আমি আমার ঠাকুর দাদার ওই শ্মশান হইতে দোকান ঘর উঠাইয়া নিতে বললে শান্তি রঞ্জন হাওলাদার আমাকে ভীষণভাবে দাবায় ও ধমকায়। বর্তমানে আমার ঠাকুর দাদার শ্মশান নিয়ে শান্তি রঞ্জন হাওলাদারের সাথে গুরুতর শান্তি ভংগের সম্ভাবনা রয়েছে।

তিনি তার ঠাকুর দাদার শ্মশান হইতে দোকান ঘর উঠাইয়া নিতে এবং শ্মশান সংস্কার করতে পারে তার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন।

কলাপাড়া থানার ওসি (তদন্ত) মো. আসাদুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে সাথে সাথে পুলিশ পাঠিয়ে কাজ বন্ধ করে দিয়েছি।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]