তালাক দিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে রাত্রিযাপন, স্বামীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা!

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত জুন ৯ বুধবার, ২০২১, ০৭:১৩ অপরাহ্ণ
তালাক দিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে রাত্রিযাপন, স্বামীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা!

ডেস্ক রিপোর্ট>> ময়মনসিংহের নান্দাইলে শ্বশুরবাড়িতে স্ত্রীর সঙ্গে রাত্রিযাপন করে স্বামী। কিন্তু পরদিন দুপুরে স্বামী কর্তৃক তালাক নামা নোটিশ প্রাপ্ত হয় সেই স্ত্রী। প্রায় একমাস পূর্বে স্বামীর একতরফা তালাক দেয়ার বিষয়টি জানতো না স্ত্রী।

 

এতে স্ত্রী প্রতরণার শিকার হওয়ায় নান্দাইল মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০৩ এর (৯)১ স্বামীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করে। এ ঘটনাটি ঘটেছে নান্দাইল উপজেলার আচারগাঁও ইউনিয়নে সিংদই গ্রামে।

 

থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উক্ত ধর্ষিতা (২২) এর বাড়ি সিংদই গ্রামে। প্রায় ২ বছর পূর্বে একই উপজেলার পৌরসদরের চারিআনিপাড়া গ্রামের আঃ করিমের পুত্র মো. ফরিদ মিয়া (২৫)র সাথে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হয় সে।

 

মেয়ের সুখের আশায় মেয়ের মা-বাবা জামাই ফরিদ মিয়াকে নগদ ২ লাখ টাকা সহ স্বর্ণালংকার ও আসবাবপত্র দিয়ে মেয়েকে তুলে দেয়। এতে মেয়ের সংসার ভালোই চলছিল।

 

কিন্তু লোভী স্বামী আরো ২ লাখ টাকা এনে দেয়ার জন্য স্ত্রীকে নানা ধরনের অত্যচার ও নির্যাতন চালাতো। একপর্যায়ে প্রায় একমাস পূর্বে স্বামীর কথামতো স্ত্রী তাঁর বাবার বাড়িতে চলে আসে।

 

পরে ২ জুন উক্ত স্বামী ফরিদ মিয়া শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে আসলে শ্বশুরবাড়ির লোকজনের আদর আপ্যায়ন শেষে স্ত্রীর সঙ্গে রাত্রি যাপন করে।

 

কিন্তু পরদিন দুপুরে ডাক অফিসের পিয়ন সেই স্ত্রীর পিতার হাতে স্বামী কর্তৃক তালাক নামা নোটিশ প্রাপ্ত হয়। এতে উক্ত ফরিদ মিয়ার প্রত্যারণার বিষয়টি হাতে নাতে ধরা পড়ে।

 

পরে শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে আটকে রেখে থানা পুলিশের হাতে তুলে দেয়। পরে প্রতারণার শিকার ধর্ষিতা (স্ত্রী) বাদী হয়ে ৪ ঠা জুন/২০২১ নান্দাইল মডেল থানায় ফরিদ মিয়ার বিরুদ্ধে ধর্ষন মামলা দায়ের করে। নান্দাইল মডেল থানার উপ-পরিদর্শক ফজিকুল ইসলাম মামলাটির তদন্তভার গ্রহন করেছেন।

 

তিনি জানান, ফরিদ মিয়াকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]