পরিচয় নিয়ে টানাটানি : শাওন যুবলীগের না যুবদলের?


ebdn প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ৩, ২০২২, ৭:৪৩ অপরাহ্ণ /
পরিচয় নিয়ে টানাটানি : শাওন যুবলীগের না যুবদলের?

ডেক্স সংবাদ : নারায়ণগঞ্জে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচিতে পুলিশের বাধাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে নিহত শাওন প্রধানের রাজনৈতিক পরিচয় নিয়ে টানাটানি শুরু হয়েছে।

 

বিএনপি ও যুবদল নেতারা তাকে যুবদলের কর্মী দাবি করেছেন। আওয়ামী লীগ বলছে- শাওন যুবলীগ কর্মী। জেলা পুলিশ সুপার বলছেন শাওন যুবদল কর্মী নয়। সে ফতুল্লা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শওকত হোসেনের ভাতিজা।

 

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৭টায় ফতুল্লার নবীনগর এলাকায় শাওনের বাড়ির সামনে বিক্ষোভ করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ। তারা শাওন হত্যার বিচার চেয়েছে। অন্যদিকে শাওন গুলিবিদ্ধ হওয়ার আগে মিছিলের অগ্রভাগের ছবি বিএনপি নেতা-কর্মীরা ফেসবুকে শেয়ার করেছেন।

 

এ ছাড়া শাওনের অতীত বিএনপি কর্মকাণ্ডের একাধিক ছবিও পোস্ট করা হয়েছে ফেসবুকে। ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক জাহাঙ্গীর মাস্টার জানান, শাওন আমাদের এলাকার ছেলে। ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শওকত আলীর ভাতিজা। শাওন যুবলীগের রাজনীতি করেছেন। আমরা এ হত্যার বিচার চাই। যুবদলের সাবেক কেন্দ্রীয় সদস্য সাদেকুর রহমান সাদেক বলেন, শাওন আমার সঙ্গে যুবদলের রাজনীতি করত। ফতুল্লা থানা যুবদলের প্রস্তাবিত কমিটিতে তার নাম রয়েছে।

 

নিহত শাওনের বড় ভাই মিলন প্রধান গণমাধ্যমকে জানান, এর আগেও কয়েকবার শাওন বিএনপির কর্মসূচিতে গেছে। আমরা তাকে শাসন করেছি। তারপরও সে গোপনে রাজনীতি করত।

 

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান জানান, শাওনকে আওয়ামী লীগ কর্মী বানানোর চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। মানুষের কাছে পরিষ্কার- সে ছিল বিএনপি কর্মী।

 

শাওনের শরীরে দুই জখম- চিকিৎসক : বৃহস্পতিবার রাতে হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) শেখ ফরহাদ জানিয়েছেন, নিহতের বুকের বা পাশে এবং পিঠের নিচের অংশে দুটি গভীর ক্ষত চিহ্ন পাওয়া গেছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে তার মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।