আগৈলঝাড়ায় আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশ থেকেই মাটি কেটে ভরাট!


Barisal Crime Trace -GF প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ৪, ২০২২, ৭:২১ অপরাহ্ণ /
আগৈলঝাড়ায় আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশ থেকেই মাটি কেটে ভরাট!

নিজস্ব প্রতিবেদক : কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে সড়কের পাশের মাটি কেটে সেই মাটি দিয়েই নামকাওয়াস্তে সড়কের পাশ ভরাট করার অভিযোগ উঠেছে বরিশাল সওজ বিভাগের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে।

 

 

কর্মকর্তাদের যোগসাজশে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নামকাওয়াস্তে কাজের কারণে বরিশালের আগৈলঝাড়া-গৌরনদী-গোপালগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের স্থায়ীত্ব নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। বরিশাল সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী অরুন কুমার বিশ্বাসকে বিষয়টি অবহিত করা হলেও তিনি কোন কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহন করেননি।

 

 

স্বপ্নের পদ্মা সেতুর চালুর পরে এই মহাসড়কে পূর্বের চেয়ে যানবাহন চলাচল কয়েকগুন বেড়েছে। পরিবহনগুলো ওভারটের্কিং করা ও সাইড দিতে গিয়ে সড়কের পাশের মাটিতে দেবে গিয়ে ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। দুর্ঘটনা এড়াতে সরকার সড়ক সংস্কার ও পাশে মাটি ভরাটের কাজ শুরু করলেও কর্মকর্তাদের যোগসাজশে ঠিকাদারের কারণে সরকারের ভাল উদ্যোগের সুফল আসবে না বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

 

 

উল্লেখিত মহাসড়কের বিভিন্ন ক্ষতিগ্রস্থ স্থানেও সড়ক খুড়ে ফেলে রাখা ও নিয়ম অনুযায়ি ঢালাই না করারও অভিযোগ রয়েছে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে।

 

 

বরিশাল সওজ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গৌরনদী-আগৈলঝাড়া-গোপালগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের দুই পাশ বর্ধিত করণসহ সড়ক সংস্কার কাজের জন্য চলতিবছর জুন মাসে টেন্ডার আহবান করা হয়। টেন্ডারে ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে বরিশালের মাহফুজ খান লিমিটেড নারেম ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে কার্যাদেশ প্রদান করে সড়ক বিভাগ।

 

 

কার্যাদেশ পেয়ে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কাজ শুরু করলেও আগৈলঝাড়া উপজেলার জোবারপাড়, সরবাড়িসহ বিভিন্ন স্থানে সড়কের পাশ থেকে মাটি কেটে সেই মাটি দিয়ে ভরাট করা হচ্ছে মহাসড়কের পাশ। ফলে সহসাই ভরাটকৃতমাটি ভেঙ্গে পরে পূর্বের অবস্থায় ফিরবে মহাসড়ক।

 

 

মহাসড়কের কাজের তত্বাবধানের দায়িত্বে থাকা বরিশাল সওজ’র উপ-সহকারী প্রকৌশলী অরুন কুমার বিশ্বাস সাংবাদিকদের জানান, কিছু স্থান থেকে মহাসড়কের পাশ থেকে মাটি কাটা হলেও ওই সব স্থান মাটি দিয়ে ভরাট করে দিতে শ্রমিকদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।