আমতলীতে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের হামলা; আহত ১৩

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত জুন ১২ শনিবার, ২০২১, ০৬:১০ অপরাহ্ণ
আমতলীতে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের হামলা; আহত ১৩

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি : আমতলীর উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ প্রার্থী মনিরুল ইসলাম মনির কর্মী সমর্থক ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ আসাদুর রহমান আসাদ মৃধার কর্মী সমর্থকদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও হামলায় ১৩ জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহত দু’জনকে আমতলী ও পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনা ঘটেছে শুক্রবার রাতে গুলিশাখালী ও গোজখালী বাজারে।

জানা গেছে, গুলিশাখালী ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ প্রার্থী মনিরুল ইসলাম মনি ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ আসাদুর রহমান আসাদ মৃধার কর্মী সমর্থকদের মধ্যে শুক্রবার সন্ধ্যায় গুলিশাখালী ও গোজখালী বাজারে প্রচারনা চালাতে গিয়ে ধাওয়া পাল্টা ও হামলার ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের ১৩ জন আহত হয়। গুরুতর আহত মোঃ রাসেল পঞ্চায়েতকে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং মনু মিয়াকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অপর আহত মিজান দফাদার, মহিবুল, জাহিদ, আমিনুল মাদবর, নারী কর্মী শিল্পী, জলিল গাজী. লিটন বিশ^াস, আল আমিন, মনির, জাকির ও মামুনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। এ ঘটনায় আওয়ামীলীগ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী শুক্রবার রাতে থানায় পাল্টা পাল্টি অভিযোগ দিয়েছেন।

স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ আসাদুর রহমান আসাদ মৃধা অভিযোগ করে বলেন, আওয়ামীলীগ প্রার্থী মনিরুল ইসলাম মনির শতাধিক কর্মী সমর্থকরা মোটর সাইকেলে অস্ত্রের মহড়া দিয়ে আমার কর্মী সমর্থকদের মারধর ও পোষ্টার-ব্যানার ছিড়ে ফেলছে এবং মাইক ভাংচুর করছে। তিনি আরো বলেন, তারা এলাকার সাধারণ মানুষ ও ভোটারদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। দ্রুত পুলিশ প্রশাসনকে এ ঘটনায় তদন্তপুর্বক ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানান তিনি।

আওয়ামীলীগ প্রার্থী মনিরুল ইসলাম মনির সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার কর্মী সমর্থকরা শান্ত ভাবে ভোটারদের কাছে ভোট প্রার্থনা করছে। কাউকে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও অস্ত্রের মহড়া দিচ্ছে না। তিনি আরো বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী আসাদের কর্মী সমর্থকরা আমার উপর হামলা করেছে। তার কর্মী সমর্থকদের হামলায় আমার ৬ কর্মী আহত হয়েছে।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক মোঃ ইমদাদুল হক চৌধুরী বলেন, আহত রাসেলকে যথাযথ চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

আমতলী থানার ওসি মোঃ শাহ আলম হাওলাদার বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি আরো বলেন, নির্বাচনে কোন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চলতে দেয়া হবে না। আইন শৃখংলা রক্ষায় সকল পদক্ষেপ নেয়া হবে।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]