বরিশালে দুইদিন পর শিক্ষক দম্পতির পথের কাঁটা অপসারণ করলো পুলিশ


Barisal Crime Trace -GF প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ৬, ২০২২, ৬:৫৭ অপরাহ্ণ /
বরিশালে দুইদিন পর শিক্ষক দম্পতির পথের কাঁটা অপসারণ করলো পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : বরিশালের মুলাদী উপজেলায় পূর্বশত্রুতার জেরে এক শিক্ষক দম্পতির চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ার দুইদিন পর সেখানকার কাঁটা অপসারণ করেছে পুলিশ। ফলে ভোগান্তি থেকে মুক্তি মিলছে উপজেলার কাজিরচর ইউনিয়নের চরকমিশনার গ্রামের ওই শিক্ষক দম্পতির।

 

 

সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে থানা পুলিশ গিয়ে প্রায় অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে তাদের মুক্ত করেন।

 

 

ভুক্তভোগীরা হলেন, উপজেলার চরকমিশনার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাসির উদ্দীন কাজী ও তার স্ত্রী একই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা হাওয়ানুর বেগম।

 

 

 

শিক্ষক নাসির উদ্দীন কাজী জানান, চরকমিশনার এলাকায় নিজ জমিতে বাড়ি নির্মাণ করে প্রায় ৪০ বছর ধরে বাস করছেন। বাড়ি থেকে মূল সড়ক পর্যন্ত একটি এজমালি রাস্তা রয়েছে। বৃষ্টি হলে ওই রাস্তায় পানি জমে যেত। তাই কয়েকদিন আগে ওই রাস্তা সংস্কার করতে গেলে প্রতিবেশী ফারুক হোসেন কাজী, ইউসুফ ব্যাপারী ও তাদের লোকজন বাঁধা দেন। বিষয়টি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারকে জানালে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে শনিবার বিকেলে রাস্তায় কাঁটা দিয়ে পুরোপুরি বন্ধ করে দেন।

 

 

 

ওই শিক্ষক জানান, বাড়ি থেকে বের হওয়ার পথে কাঁটা দেওয়ায় তিনি ও তার পরিবারের লোকজন অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন। তারা বাড়ির পেছনে বিলের মধ্যে দিয়ে পানি কাদা ভেঙে কষ্ট করে চলাচল করেছেন। বন্ধ রাস্তা খুলে দেওয়ার জন্য রোববার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে আবেদন করেন। এছাড়া মুলাদী থানা পুলিশকেও বিষয়টি জানান। এর পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার বিকেলে পুলিশ এসে পথে থাকা কাঁটা অপসারণ করে।

 

 

 

এদিকে, স্কুল শিক্ষকের প্রতিবেশী ফারুক হোসেন কাজী দাবি করেন, রাস্তাটি নির্মাণের সময় নাসির উদ্দীন কাজী কোনো সহযোগিতা করেননি এমনকী জমিও দেননি। সেই রাস্তা দিয়ে তাকে চলাচল করতে নিষেধ করা হয়েছে। তবে তাদের পথে কে বা কারা কাঁটা ফেলে রেখেছিল তা বলতে পারছি না।

 

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নূর মোহাম্মদ হোসাইনী বলেন, স্কুল শিক্ষকের অভিযোগ পেয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মুলাদী থানার ভারপ্রাপ্ত (ওসি) কর্মকর্তাকে বলা হয়েছে।

 

 

মুলাদী থানার ওসি এস এম মাকসুদুর রহমান বলেন, স্কুল শিক্ষকের সঙ্গে প্রতিবেশীদের জমি নিয়ে বিরোধ চলছে। এ কারণে প্রতিপক্ষ কেউ হয়তো চলাচলে বাধা সৃষ্টি করেছিল। বিকেলে পুলিশ পাঠিয়ে পথের কাঁটা অপসারণ করা হয়েছে। পাশাপাশি শিক্ষক ও তার প্রতিপক্ষ এবং কাজিরচর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের মঙ্গলবার থানায় আসতে বলা হয়েছে। সবার সঙ্গে আলোচনা করে বিষয়টি সমাধান করা হবে।