৩০ টাকা কেজির চাল পাবেন বরগুনার ৬৩ হাজার কার্ডধারী


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ৮, ২০২২, ২:২৪ অপরাহ্ণ /
৩০ টাকা কেজির চাল পাবেন বরগুনার ৬৩ হাজার কার্ডধারী

স্টাফ রিপোর্টার, বরগুনা: চালের মূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখতে বরগুনা জেলার ৬ উপজেলায় সর্বমোট ৬ লাখ ৩২ হাজার ৬৫ জন টিসিবি কার্ডধারী মাসে দুই বার ৫ (পাঁচ) কেজি করে মোট ১০ (দশ) কেজি চাল কিনতে পারবেন ৩০ টাকা কেজি দরে। বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) বরগুনা জেলা প্রশাসক হাবিবুর রহমানের স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, সাম্প্রতিক মূল্যস্ফীতির দরুণ বৃদ্ধিপ্রাপ্ত চালের মূল্য সহনীয় পর্যায়ে আনতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুসারে ৯ সেপ্টেম্বর থেকে সারা দেশে একযোগে ওএমএস ও খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে বিবিধ পরিকল্পনা ও কৌশল নেওয়া হয়েছে।

খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির মাধ্যমে সারাদেশ ৫০ লাখ পরিবারের মধ্যে চাল বিতরণ করা হবে। পাশাপাশি ওএমএস কার্যক্রমে টিসিবির কার্ডধারীদের সমন্বয় করে খাদ্যশস্য বিতরণের লক্ষ্যে বিবিধ গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

সারাদেশে ওএমএস ডিলারের সংখ্যা প্রায় তিনগুণ বাড়িয়ে ২ হাজার ৩৬৩ করা হয়েছে। এছাড়া ওএমএস ডিলারদের প্রতি জনকে এক মে.টন চালের স্থলে দুই মে.টন চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

ওএমএসের মাধ্যমে বিতরণ করা প্রতি কেজি চালের মূল্য হবে ৩০ টাকা। টিসিবি কার্ডধারীরা তাদের কার্ড দেখিয়ে এবং সাধারণ মানুষ জাতীয় পরিচয়পত্র দেখিয়ে মাসে দুই বার ৫ ( পাঁচ ) কেজি করে মোট ১০ ( দশ ) কেজি চাল কিনতে পারবেন।

জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে বরগুনা জেলার ৬ উপজেলায় সর্বমোট ৬ লাখ ৩২ হাজার ৬৫ জন টিসিবি কার্ডধারী ( বরগুনা জেলা সদর ১৯২৭১ জন, আমতলী ১২৩১৩ জন, পাথরঘাটা ১১৭২৮ জন, বেতাগী ৭৮৮১ জন, বামনা ৬৩৭৪ জন, ভালতলী ৫৬৯৮ জন ) ওএমএসের ডিলারদের কাছ থেকে চাল কিনতে পারবেন।

বরগুনা জেলা সদরের ১০ জন ওএমএস ডিলারের মাধ্যমে প্রতিদিন ১০ হাজার মে.টন চাল প্রতি কেজি ৩০ টাকা দরে বিক্রি করা হবে । জেলা সদরের ওএমএস কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে তদারকির লক্ষ্যে ট্যাগ অফিসার নিয়োগ করা হয়েছে। পাশাপাশি জেলার বাকি ৫ উপজেলায় নিয়োগকৃত ১৫ জন ডিলারের মাধ্যমে দৈনিক ডিলার প্রতি ২ (দুই) মে.টন করে মোট ৩০ মে.টন চাল বিতরণ করা হবে। উপজেলায়ও ওএমএস কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে তদারকির লক্ষ্যে ট্যাগ অফিসার নিয়োগ করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক নির্ধারিত ক্যালেন্ডার অনুযায়ী টিসিবির কার্ডধারীরা ওএমএসের লাইনের সঙ্গে চাল কিনতে পারবেন। চাল দেওয়ার পর ওএমএস ডিলাররা টিসিবির কার্ডের পেছনে নমুনা সীল/পাঞ্চ মেশিন দিয়ে কার্ডের উপরে প্রতিবার ১টি ছিদ্র করে দেবেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী টিসিবি কার্ডধারীরা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পণ্য পাবেন।