মুলাদীতে ঝুঁকি নিয়ে ভাঙা সেতু পার, চরম দুর্ভোগ


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ১১, ২০২২, ১১:৪৬ পূর্বাহ্ণ /
মুলাদীতে ঝুঁকি নিয়ে ভাঙা সেতু পার, চরম দুর্ভোগ

স্টাফ রিপোর্টার, মুলাদী : বরিশালের মুলাদীতে দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে একটি সেতু। কয়েক বছর আগে ভেঙে যাওয়া ওই সেতুটি সংস্কার না হওয়ায় ঝুঁকি নিয়ে চলতে হচ্ছে স্থানীয়দের। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, শিগগিরই উপজেলার সদর ইউনিয়নের দড়ি চরলক্ষ্মীপুর গ্রামের ওই সেতুটি সংস্কার করা হবে।

স্থানীয়রা জানান, ছয়-সাত বছর আগে দড়ি চরলক্ষ্মীপুর গ্রামে একটি লোহার সেতু নির্মাণ করা হয়। এক বছর পরই সেতুর দুই পাশের লোহার খুঁটি দেবে যায় এবং পাটাতন হেলে পড়ে। এরপর দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও সেতুটি সংস্কারের উদ্যোগ নেননি সংশ্লিষ্টরা। জয়নাল আবেদীন বলেন, ‘সেতুটি ভেঙে যাওয়ার পর চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বিকল্প যাতায়াতের পথ না থাকায় বাঁশ ও গাছ দিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে। এই সেতু দিয়ে এলাকার ছেলেমেয়েদের প্রাথমিক বিদ্যালয়, কাজিরচর (খাসেরহাট) মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদ্রাসায় যাতায়াত করতে হয়।’

ওই গ্রামের বাসিন্দা খলিলুর রহমান বলেন, ‘খাসেরহাট, মুলাদী বাজার কিংবা খেত-খামারে কাজে যেতে হলে সেতুটি পার হতে হয়। এটি ভেঙে যাওয়ায় ভ্যান চলাচল করতে পারছে না। অনেক কষ্টে মাথায় করে মালামাল পরিবহন করতে হচ্ছে। গরু, ছাগল পারাপারে অনেক ভোগান্তি হয়।’ স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য মো. শাকায়েত হোসেন মল্লিক বলেন, ‘সেতুটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এটি ভেঙে যাওয়ার পর আর সংস্কার না করায় মানুষজন ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। সেতুটি সংস্কারের জন্য ইউনিয়ন পরিষদের সভায় উপস্থাপন করা হবে।’

ইউপি চেয়ারম্যান মো. কামরুল আহসান বলেন, ‘কাঠেরপুল এলাকায় পুরোনো সেতু ভেঙে একটি নতুন সেতু নির্মাণের চেষ্টা চলছে। এ জন্য স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরে চাহিদা দেওয়া হয়েছে। নতুন সেতু নির্মাণে বিলম্ব হলে ভাঙা সেতুটি দ্রুত সংস্কারের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ এ বিষয়ে উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল দপ্তরের প্রকৌশলী মো. তানজিলুর রহমান বলেন, ‘ইউপি চেয়ারম্যানের চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দপ্রাপ্তির জন্য বরিশাল নির্বাহী প্রকৌশলীর দপ্তরে কাগজপত্র পাঠানো হয়েছে। বরাদ্দ পেলে সেতু নির্মাণ করা হবে।’