চরফ্যাশনে কাস্তে গরম করে গৃহবধূর গালে ছ্যাঁকা


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২২, ৮:১০ অপরাহ্ণ /
চরফ্যাশনে কাস্তে গরম করে গৃহবধূর গালে ছ্যাঁকা

স্টাফ রিপোর্টার, চরফ্যাশন : ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার দুলারহাটে বিয়ের মাত্র দুই মাসের মাথায় কাস্তে গরম করে গৃহবধূর গালে ছ্যাঁকা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। পরে তাকে চিকিৎসা না করিয়ে ঘরে অবরুদ্ধ রেখে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত বৃহস্পতি ও শুক্রবার দুলারহাট থানার নীলকমল ইউনিয়নে চর নুরুল আমিন গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে খবর পেয়ে শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় গৃহবধূর বাবা স্বামীর বাড়ি থেকে তাকে উদ্ধার করেন।

এ ঘটনায় গৃহবধূ আছমার বাবা বাদী হয়ে অভিযুক্ত মো. হোসাইনের নামে দুলারহাট থানায় অভিযোগ করেন। পরে থানাপুলিশ হোসাইনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

দুলারহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ারুল হক আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেন। শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) গৃহবধূ আছমা জানান, প্রেমের সম্পর্ক থেকে হোসাইনের সঙ্গে বিয়ে হয় তার। দুই মাস আগে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই আছমার পরিবারের কাছ থেকে যৌতুক আনার জন্য চাপ দেন হোসাইন। আছমার পরিবার যৌতুক দিতে অস্বীকার করেন। তারপর থেকেই তার ওপর নির্যাতন চালায় হোসাইন। নির্যাতন সইতে না পেরে স্বামী হোসাইনের সংসার করবেন না বলে আছমা স্বামীকে জানান।

পরে বৃহস্পতিবার রাতে হোসাইন কাস্তে গরম করে গৃহবধূ আছমার বাম পাশের গালে ছ্যাঁকা দেন। পুড়ে দিয়ে চিকিৎসা ছাড়া ঘরে অবরুদ্ধ করে নির্যাতন করেন। পরে আছমার বাবা মো. মতলব খবর পেয়ে মেয়েকে উদ্ধার করে দুলারহাট থানায় নিয়ে আসেন।

মারধরের কথা স্বীকার করেছেন অভিযুক্ত স্বামী মো. হোসাইন। এ বিষয়ে দুলারহাট থানার ভার্রপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ারুল হক জানান, এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ও তার বাবা থানায় এসে লিখিত অভিযোগ করেন। পুলিশ হোসাইনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।