৬০ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া: বিসিসির ১৫টি সং‌যোগ বি‌চ্ছিন্ন


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ২১, ২০২২, ১২:০১ অপরাহ্ণ /
৬০ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া: বিসিসির ১৫টি সং‌যোগ বি‌চ্ছিন্ন

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল : বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় বরিশাল সিটি করপোরেশন (বিসিসি) সড়ক বাতি ও পানির লাইনের সং‌যোগ বি‌চ্ছিন্ন করা হ‌য়ে‌ছে। প্রায় ৬০ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় বৈদ্যুতিক লাইন বিচ্ছিন্ন করছে ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি (ওজোপাডিকো)।

গত রবিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৪টা থেকে এই অভিযান শুরু করে নগরীর সকল সড়কের বৈদ্যুতিক লাইন বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে ওজোপাডিকো বরিশাল বিভাগ।

বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়ায় নগরীর ৩০টি ওয়ার্ডের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ভূতুড়ে বাড়ি গলিতে পরিণত হয়েছে। বাসিন্দারা রাত্রীকালীন চলাচলে ভোগান্তি পোহাচ্ছেন। সিটি করপোরেশন থেকে উদ্বুদ্ধ পরিস্থিতি মোকাবেলায় কার্যকর কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন তারা।

ওজোপাডিকো লিমিটেড বরিশালের পরিচালনা ও সংরক্ষণ সার্কেলের সহকারী প্রকৌশলী নুরুল ইসলাম বিশ্বাস বলেন, কমপক্ষে ১০ বছর ধরে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করছে না সিটি করপোরেশন। এতে করে বৃহৎ একটি অঙ্ক দাঁড়িয়েছে। সেই টাকা উত্তোলন করতে না পেরে আমরাও রয়েছি মন্ত্রণালয়ের কাছে চাপের মুখে। অবশেষে সিটি করপোরেশনের সড়ক বাতির বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্নের অভিযান শুরু হয়েছে। রবিবার থেকে শুরু হয়ে অভিযান চলছে।

পরিচালনা ও সংরক্ষণ সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী এটিএম তারিকুল ইসলাম বলেন, সিটি করপোরেশনের কাছে মোট ৫৯ কোটি ৯৪ লাখ টাকা পাওনা রয়েছে। এর মধ্যে ৭৮ লাখ পরিশোধ করেছে সিটি করপোরেশন। অভিযান চালিয়ে ৫৮টি লাইনের মধ্যে সোমবার ১৫টি বিচ্ছিন্ন করি। আর সিটি করপোরেশন মঙ্গলবার সবগুলো লাইন বন্ধ রেখেছে। তবে আমরা কোনো পানির লাইন বিচ্ছিন্ন করিনি।

তিনি বলেন, পাওনা পরিশোধে অসংখ্যবার তাদেরকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। কিন্তু সিটি করপোরেশন থেকে আশানুরূপ কোনো সাড়া দেওয়া হয়নি। সর্বশেষ ১৮ সেপ্টেম্বর পরিশোধের সময়সীমা ছিল। কিন্তু নির্ধারিত সময়েও তারা পরিশোধ করেনি। ফলে অভিযান চালিয়ে সড়ক লাইন বিচ্ছিন্ন করতে হচ্ছে।

এ কর্মকর্তা বলেন, আমরা বিভিন্ন সড়কের লাইন বিচ্ছিন্ন করছি মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে। আর সিটি করপোরেশন তাদের নিজস্ব ইলেকট্রিশিয়ান দিয়ে সেই বিচ্ছিন্ন লাইন যুক্ত করে আবারো বাতি জ্বালাচ্ছে। এভাবে করলে সরকারি এই টাকা উত্তোলনের কোনো উপায় দেখছি না।

বরিশাল সিটি করপোরেশনের প্রশাসনিক কর্মকর্তা স্বপন কুমার দাস বলেন, ১৫ সেপ্টেম্বর সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে বকেয়া বিদ্যুৎ বিলের ৭৮ লাখ টাকা গ্রহণ করে ওজোপাডিকো। আর ১৮ সে‌প্টেম্বর তারা নগরীর সকল সড়কের বিদ্যুৎ লাইন বিচ্ছিন্ন করে দেন। কেন তারা এই কাজটি করল এবং কার অনুমতি নিয়ে কাজ করল তা বলতে পারছি না। আমাদেরকে কোনো কিছুই জানায়নি। হঠাৎ করে তারা সড়ক বাতির এবং পানি সরবরাহের বিদ্যুৎ লাইন বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে। আজ পর্যন্ত নগরীর সকল সড়ক ও পানির লাইনের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।