বকেয়া ৩ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল দিতে অনীহা বরগুনা পৌরসভার


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২২, ৭:২০ অপরাহ্ণ /
বকেয়া ৩ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল দিতে অনীহা বরগুনা পৌরসভার

স্টাফ রিপোর্টার, বরগুনা: দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ না করায় বরগুনা পৌরসভার বকেয়া জমেছে তিন কোটি টাকারও বেশি। এ কারণে পৌর এলাকার পানির পাম্পের সংযোগ ছাড়া সব স্থাপনার সংযোগ বিচ্ছন্ন করেছে বিদ্যুৎ সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (ওজোপাডিকো)।

সপ্তহব্যাপী বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ওজোপাডিকোর ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী প্রকৌশলীর নেতৃত্বে পৌরসভা কার্যালয় ও শহরের বিনোদন কেন্দ্র নাথ পট্টি লেকসহ সড়কের সব বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

এতে করে সন্ধ্যা গড়াতেই অন্ধকারে ঢাকা পড়ে পুরো শহর, নাগরিকদের পোহাতে হয় চরম ভোগান্তি। এছাড়া রাতে সড়কগুলোতে বিদ্যুৎ না থাকয় নিরাপত্তাহীনতায় চলাচল করতে হয় পথচারীদের।

ওজোপাডিকোর নির্বাহী প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) অতীব বিশ্বাস বলেন, বকেয়া বিল পরিশোধ করার জন্য পৌরসভাকে একাধিকবার নোটিশ পাঠানো হয়েছে। মেয়রকে মৌখিকভাবেও বলা হয়েছে। তারা বকেয়া বিল পরিশোধের কোনো উদ্যোগ না নেওয়ায় মন্ত্রনালয়ের নির্দেশে সংযোগ বিচ্ছন্ন করতে হয়েছে।

ওজোপাডিকো জানায়, ২০২২ সালের আগস্ট পর্যন্ত বরগুনা পৌরসভার কাছে তাদের ২ কোটি ৯৪ লাখ টাকা বকেয়া বিল রয়েছে। সেপ্টেম্বরে সেটি বেড়ে ৩ কোটি ছাড়িয়ে যাবে।

এরমধ্যে ২০১১ সালে ৪০ লাখ টাকা বকেয়া বিল সাবেক মেয়র পরিশোধ করেন। তার সময়ের ১ কোটি ৮০ লাখ টাকার বিল থেকে ৩০ লাখ টাকা পরিশোধ করেন। সব মিলিয়ে ২০২২ সালের আগস্ট পর্যন্ত বর্তমানে ২ কোটি ৯৪ লাখ টাকা বকেয়া রয়েছে।

পৌর এলাকার বাসিন্দা ইলিয়াস আলী বলেন, শহর জুড়ে সন্ধ্যার পর থেকে ভুতুড়ে অবস্থা সৃষ্টি হয়। চুরি ডাকাতি ছিনতাইসহ নানা ধরনের অপকর্ম বেড়ে যেতে পারে। এছাড়া রাতে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতে হয়।

বরগুনা পৌরসভার মেয়র অ্যাডভোকেট কামরুল আহসান মহারাজ ফোনে বলেন, আমি বর্তমানে ঢাকায় মন্ত্রণালয়ে কাজে এসেছি। বিগত মেয়রের সময়ের বকেয়া বিলের দায়ও আমাকে নিতে হচ্ছে। আমি দায়িত্ব গ্রহনের পর এ কয় মাসে এতো মোটা অংকের বিল বকেয়া থাকার কথা না। আমি এখান থেকে ফিরে বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত জানাবো।