বাউফল পল্লী বিদ্যুতের এজিএমের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২, ৩:১৪ অপরাহ্ণ /
বাউফল পল্লী বিদ্যুতের এজিএমের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ

বাউফল প্রতিনিধি : পটুয়াখালী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির বাউফল জোনাল অফিসের সহকারি জেনারেল ম্যানেজার (এজিএম) প্রকৌশলী গগন সাহার বিরুদ্ধে অফিসের কর্মচারি ও গ্রাহকের সাথে অসদাচারণ করাসহ নানা অভিযোগ উঠেছে।

তার এমন আচরণে কর্মচারীদের মাঝে অসন্তোষ বিরাজ করলেও চাকুরীর ভয়ে কেউ মুখ খুলছেন না। অভিযোগ রয়েছে, তিনি অফিসের নিয়মনীতির কোন তোয়াক্কা না করে যখন ইচ্ছা অফিসে আসেন, আবার যখন ইচ্ছা অফিস ত্যাগ করেন। এমনকি অধীনস্ত কর্মচারীদেরকে খারাপ ভাষায় গালমন্দও করেন। শুধু গালমন্দ করেই খান্ত থাকেন না গগন সাহা। তার এসব কর্মকান্ডের কেউ প্রতিবাদ করলে তাকে দেয়া হচ্ছে চাকুরিচ্যুতের হুমকী।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই অফিসের এক লাইনম্যান অভিযোগ করে বলেন, গগন সাহা এ বছরের ৫ জুলাই বাউফল পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে যোগদান করেছেন। সে আসার পর থেকে বিদ্যুৎ অফিসের কর্মচারীরা ভয়ের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী সকাল ৮ টায় অফিসে আসার কথা থাকলেও প্রায়ই তিনি অফিসে আসেন সকাল ৯ টার পর। সাধারণ গ্রাহক ও অফিসের কর্মচারীদের সাথে তুই-তামারি ভাষায় কথা বলেন। তাদেরকে নুন্যতম সম্মানটুকু দেন না। এমনকি ব্যক্তিগত বাজারও তিনি অফিসের কর্মচারীদের দিয়ে করিয়ে থাকেন।

এছাড়া সকল সাব-স্টেশনের ইনচার্জদের ডেকে মিটার লিডারদের বিরুদ্ধে সাজানো অনিয়মের অভিযোগ দিতে বলেন তিনি। কোন ইনচার্জ যদি মিটার লিডারদের বিরুদ্ধে তার (গগন সাহা) ইচ্ছেমতো সাজানো অভিযোগ দিতে পারেন, তাহলে স্যারকে বলে ওই ইনচার্জদেরকে প্রমোশন দেওয়া হবে বলেও আশ্বস্ত করেন গগন সাহা।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে গগন সাহা বলেন, এ ব্যাপারে আমি কোন মন্তব্য করতে চাই না। আপনি সাংবাদিক আমার উর্ধতন কর্তৃপক্ষের বক্তব্য নিতে পারেন।

এ ব্যাপারে পল্লী বিদ্যুৎ বাউফল জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) মো. মুজিবুর রহমান চৌধুরী বলেন, যেহতু আমি তার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ পাইনি, সেহেতু অভিযোগগুলো মিথ্যা বলে আমি মনে করছি।