ময়নাতদন্তের ভিসেরা রিপোর্ট না আসায় বিচারে ভোগান্তি


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২২, ৩:৪৯ অপরাহ্ণ /
ময়নাতদন্তের ভিসেরা রিপোর্ট না আসায় বিচারে ভোগান্তি

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল : ছয় মাস ধরে বরিশালে আসছে না ময়নাতদন্তের ভিসেরা রিপোর্ট। ফলে অনেকটাই ফাইল বন্ধি হয়ে রয়েছে প্রায় তিন শতাধিক অপমৃত্যু ও হত্যা মামলার কার্যক্রম। পাশাপাশি আলামত ক্ষতিগ্রস্থ হবার শংকা দেখা দিয়েছে।

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকালে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, সর্বশেষ ঢাকাস্থ প্রধান রাসায়নিক পরীক্ষাগার থেকে বরিশালের ফরেন্সিক বিভাগে ভিসেরা রিপোর্ট এসেছিলো চলতি বছরের ২৮ মার্চ। এরপর আর কোন রিপোর্ট আসেনি।

সূত্রে আরো জানা গেছে, ময়নাতদন্তের পর চলতি বছরের ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বরিশাল থেকে হত্যা, আত্মহত্যা ও অমৃত্যু মিলিয়ে ৩৬০ জনের ভিসেরা রিপোর্টের জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এরমধ্যে মাত্র ৬০ জনের রিপোর্ট এসেছে। বাকি তিনশ’ জনের ভিসেরা রিপোর্ট মাসের পর মাস ঢাকায় জমা পরে আছে।

শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ফরেন্সিক মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডাঃ মোঃ রেফায়েতুল হায়দার জানান, ভিসেরা সামগ্রীতে যে প্রিজারভেটিভ দেয়া হয় তারও একটা নির্দিষ্ট মেয়াদ থাকে। এতো বিলম্বের কারণে ভিসেরা সামগ্রীতে পচনের শংকা রয়ে যাচ্ছে। এমনটা হলে ভিসেরা রিপোর্ট সম্পূর্ণ উল্টো হতে পারে।

শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ অধ্যাপক মনিরুজ্জামান শাহীন জানান, প্রত্যেকটি হত্যা, আত্মহত্যা কিংবা অপমৃত্যুর পর আইনত এর ময়নাতদন্তের প্রয়োজন হয়। যার (ময়নাতদন্ত) প্রথম পর্ব সমাপ্ত হয় স্থানীয় মর্গে আর চূড়ান্ত পর্ব নির্ধারিত হয় ভিসেরা রিপোর্টে।

বরিশালের ভিসেরা রিপোর্ট পেতে ঢাকাস্থ প্রধান রাসায়নিক পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়। তিনি আরও জানান, অজ্ঞাতকারনে দীর্ঘদিন থেকে ঢাকা থেকে ভিসেরা রির্পোট দেওয়া হচ্ছে না।

কোতয়ালী মডেল থানার ওসি মোঃ আজিমুল করীম জানান, বরিশাল মেট্রোপলিটন এলাকার সাতটি হত্যা ও ১৮০টি অপমৃত্যুর ভিসেরা রিপোর্ট দীর্ঘদিন থেকে ঢাকায় আটকা রয়েছে। এ অবস্থায় পুলিশি কার্যক্রমে মামলার অগ্রগতি হচ্ছে না।

বরিশালের সিনিয়র আইনজীবী এ্যাডভোকেট দিলীপ ঘোষ জানান, ভিসেরা রির্পোট না আসায় মামলার পুরো আইনী কার্যক্রম থেমে রয়েছে। যেকারণে বিচার প্রার্থীদের অপেক্ষার প্রহর গুনতে হচ্ছে।

বরিশাল মেট্রোপলিটনের পুলিশ কমিশনার মোঃ সাইফুল ইসলাম বলেন, মামলার দীর্ঘ সময়ের কারণে বিচার প্রার্থীরা আস্থা হারায়। তাই হত্যা ও অপমৃত্যুর মামলার জট এবং দীর্ঘ সময়ক্ষেপন ঠেকাতে বরিশালে ভিসেরা রিপোর্ট যেন দ্রুত সরবরাহ করা হয় সে ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করা হবে।