বসতভিটা রক্ষা করতে গিয়ে হামলায় আইসিউতে কাতরাচ্ছেন জাফর


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : অক্টোবর ১৫, ২০২২, ৩:৪৩ অপরাহ্ণ /
বসতভিটা রক্ষা করতে গিয়ে হামলায় আইসিউতে কাতরাচ্ছেন জাফর

লালমোহন প্রতিনিধি : ভোলার লালমোহনে নিজের বসতভিটা রক্ষা করতে গিয়ে প্রতিপক্ষের হামলার শিকার হয়ে আইসিউতে কাতরাচ্ছেন মো. জাফর মাতাব্বর নামের এক ব্যক্তি। বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকার বিএনকে হসপিটাল লিমিটেডের আইসিউতে ভর্তি রয়েছেন তিনি।

জানা যায়, বিগত ১০ বছর আগে লালমোহনের সাদাপোল এলাকায় ৪৮ শতাংশ জমি কিনে সেখানে বসত ঘর তুলে পরিবার নিয়ে বাস করছেন জাফর নামের ওই ভুক্তভোগী। তবে কয়েক বছরের মাথায় ওই জমি নিজেদের দাবী করে একই এলাকার ফারুক গং। এরপর থেকে জাফরকে ওই জমি থেকে উচ্ছ্বেদ করতে নানাভাবে অত্যাচার শুরু করে তারা।

এনিয়ে আদালতে কয়েকটি মামলাও চলমান রয়েছে। এরই রেশ ধরে গত ১০ অক্টোবর (সোমবার) দুপুরে ফারুক তার ছেলে ফরিদ, নোমান, হুমায়ুন ও রুবেল রড, শাবল, জিআই পাইপসহ দেশিয় অস্ত্র নিয়ে জাফরের বাড়িতে অবস্থান করে। জাফরকে এ খবর মোবাইলে জানান তার স্ত্রী কুলসুম বেগম। এরপর সে সাদাপোল বাজারে নিজের মুদি দোকান বন্ধ করে ছুটে যায় বাড়িতে। সেখানে গেলে ফারুক ও তার ছেলেরাসহ অন্তত ৮-১০ জন মিলে অতর্কিতভাবে হামলা চালায়।

এসময় জাফরকে রক্ষা করতে গিয়ে হামলার শিকার হন তার স্ত্রী কুলসুম বেগম, মা আমেনা বেগম ও ছেলে তপু। ডাকচিৎকার শুনে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেন। তাদের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় সকলকে ভোলা সদর হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। সেখানে জাফরের স্ত্রী ও ছেলের চিকিৎসা হলেও জাফর ও তার মাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিতে হয়।

বর্তমানে জাফরের মা আমেনা বেগম ঢাকা মেডিকেল কলেজ হসপিটালে ভর্তি রয়েছে। অন্যদিকে জাফরের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকার বিএনকে হসপিটাল লিমিটেডের আইসিউতে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় জাফরের স্ত্রী কুলসুম বেগম বাদী হয়ে লালমোহন থানায় একটি মামলা দায়ের করেছন।

এব্যাপারে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও লালমোহন থানার এসআই রবিন্দ্রনাথ বলেন, তদন্তে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। তবে ঘটনার পর থেকে আসামীরা পলাতক রয়েছে। তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।