পটুয়াখালীতে ৯ পরীক্ষায় প্রক্সি দিয়ে কারাগারে যুবক


Barisal Crime Trace -HR প্রকাশের সময় : নভেম্বর ২৩, ২০২২, ১১:৪৭ পূর্বাহ্ণ /
পটুয়াখালীতে ৯ পরীক্ষায় প্রক্সি দিয়ে কারাগারে যুবক

পটুয়াখালী প্রতিনিধি : পটুয়াখালীতে আলিম পরীক্ষায় প্রক্সি দেওয়ার অভিযোগে আল-আমীন (২০) নামে এক যুবককে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। একই আদেশে মূল পরীক্ষার্থীকে তিন বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সিরাজুম মুনীরা কায়ছান অভিযুক্ত ওই যুবককে এক বছরের দণ্ড দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

পটুয়াখালী পৌর এলাকার ওয়ায়েজিয়া কামিল মাদ্রাসার শিক্ষার্থী মো. ইমরানের বিপরীতে পরীক্ষা দিয়েছেন দণ্ডিত আল-আমীন। পৌর এলাকায় নেছারিয়া ফাজিল মাদ্রাসা পরীক্ষা কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। ইমরান ও আল-আমীনের বাড়ি গলাচিপা উপজেলার বড়চতরা এলাকায়।

নেছারিয়া মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ ও কেন্দ্র সচিব মো. নাসির উদ্দীন বলেন, ৬ নভেম্বর থেকে দাখিল পরীক্ষা শুরু হলে তাদের প্রতিষ্ঠানে ৭টি মাদ্রাসার অন্তত ১৬৪ পরীক্ষার্থী অংশ নিয়েছেন। শুরু থেকে মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) পর্যন্ত ৯টি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পূর্বের মতোই মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) বেলা ১১টায় প্রক্সিতে দিতে অংশ নেন আল-আমীন। প্রক্সির বিষয়টি নেছারিয়া মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষকে একটি সূত্র নিশ্চিত করলে তারা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) শেখ আব্দুল্লাহ সাদীদকে অবহিত করেন। পরে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সিরাজুম মুনীরা কায়ছান পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে অভিযুক্ত আল-আমিনকে এক বছরের দণ্ড প্রদান করেন। একই আদেশে মূল পরীক্ষার্থী ইমরানকেও তিন বছরের জন্য বহিষ্কার করেন তিনি।

উপাধ্যক্ষ আরও বলেন, পরীক্ষায় অংশ নেওয়া পরীক্ষার্থীর পক্ষে স্ব-স্ব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রত্যয়ন প্রদান দিলেও ওয়ায়েজিয়া কামিল মাদ্রাসার ৬৮ জন শিক্ষার্থীর পক্ষে কোনো প্রত্যয়ন দেয়নি ওয়ায়েজিয়া কর্তৃপক্ষ। এছাড়াও যে ব্যক্তি প্রক্সি দিতে অংশ নিয়েছে তার ছবির সঙ্গে হুবহু মিল রয়েছে মূল পরীক্ষার্থীর সঙ্গে। যে কারণে ইমরানের বিপরীতে আল-আমীন ৯টি পরীক্ষায় অংশ নিতে সক্ষম হয়েছে।