মঠবাড়িয়ায় গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার, পরিবারের দাবি হত্যা


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : নভেম্বর ২৩, ২০২২, ৮:০৩ অপরাহ্ণ /
মঠবাড়িয়ায় গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার, পরিবারের দাবি হত্যা

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার উত্তর মঠবাড়িয়া গ্রামে স্বামীর বসতঘর থেকে বুধবার দুপুরে পপি শিকদার (১৮) নামে এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই গৃহবধূর পরিবারের দাবি, শ্বাসরোধ করে হত্যা করে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলিয়ে রেখেছে স্বামী।

গৃহবধূর বাবা উপজেলার ওয়াহেদাবাদ গ্রামের কৃষক গৌতম চন্দ্র শিকদারের ভাষ্যমতে, ৪ বছর আগে স্থানীয় মিরুখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী তার মেয়ে পপিকে স্কুলে যাওয়ার পথে নেশাখোর সাগর তুলে নিয়ে বিয়ে করে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দিলেও স্থানীয়দের মধ্যস্থতায় মেনে নেন বিয়ে। তাদের আড়াই বছরের এক ছেলে রয়েছে। বিয়ের পর সাগর প্রায়ই পপিকে মারধর করত এবং তাদের বাড়িতে আসতে দিত না।

পপির মা সীমা রানী শিকদার অভিযোগ করেন, মাদক সেবক বখাটে সাগর মাতাল অবস্থায় ১০ দিন আগে তার মেয়েকে মারধর করলে আহত অবস্থায় তাদের বাড়িতে আসে। পরে চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করে আবার দু’দিন আগে (রোববার) পপিকে স্বামীর বাড়িতে পাঠিয়ে দেন।

তিনি আরও জানান, আজ সকালে মোবাইল ফোনে খবর পান, ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলে পপি আত্মহত্যা করেছে। পপির মায়ের অভিযোগ, সাগর তার মেয়েকে মারধরের পর শ্বাসরোধে হত্যা করে পালিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে সাগরের বাবা লিটন হালদারের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি মো. কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।