স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার দায়িত্ব পালন করতে চায় পুলিশ


Barisal Crime Trace -GF প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ১৫, ২০২৩, ৪:০৯ অপরাহ্ণ /
স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার দায়িত্ব পালন করতে চায় পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : টানা ১৪ বছর ক্ষমতায় বর্তমান সরকার। চলছে সরকারের তৃতীয় মেয়াদের শেষ বছর। এরই মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বর্তমান সরকারের এই ঘোষণায় রাজনৈতিক অঙ্গনে চলছে নতুন আলোচনা। তবে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য দায়িত্ব পালনে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ পুলিশ।

সম্প্রতি পুলিশ সপ্তাহ-২০২৩ -এ এই প্রতিশ্রুতির কথা জানিয়ে আইজিপি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল-মামুন বলেন, বাংলাদেশকে একটি উন্নত, সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে, প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য সবাই মিলে, একসঙ্গে দায়িত্ব পালনে দৃঢ়ভাবে প্রতিজ্ঞ। পুলিশের সব সদস্য তাদের এই দায়িত্ব পালন করে স্মার্ট বাংলাদেশের যে পরিকল্পনা, তা বাস্তবায়নে কাজ করবো।

 

‘বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে পুলিশ আছে জনতার পাশে’ প্রতিপাদ্য নিয়ে গত ৩ থেকে ৮ জানুয়ারি পর্যন্ত পালন করা হয়েছে পুলিশ সপ্তাহ। এতে পুলিশ বাহিনীর বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের পদক ও ব্যাজ প্রদান, বিভিন্ন ইউনিটের গত বছরের কার্যক্রম, কাজের সফলতা ও পুরস্কার প্রদান নানামুখী কার্যক্রম করা হয়।

 

 

এছাড়া সাবেক ও বর্তমান পুলিশ কর্মকর্তাদের পুনর্মিলনী, ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, প্রধান বিচারপতির মতবিনিময় সভা হয়েছে। এসব মতবিনিময় সভায় পুলিশ বাহিনীর সমস্যা ও নানা দাবি-দাওয়া তুলে ধরা হয়। বিজিবি, কোস্টগার্ডসহ বিভিন্ন বাহিনীর সদর দপ্তরের মতো পুলিশ অধিদপ্তর নয়, স্বতন্ত্র বিভাগ হিসেবে পুলিশ হেডকোয়ার্টার করা, স্বতন্ত্র ইউনিভার্সিটি, মেডিকেল কলেজ, পুলিশ সাইবার ব্যুরো গঠনসহ প্রায় এক ডজন দাবি-দাওয়া তুলে ধরা হয় এবারের পুলিশ সপ্তাহে।

 

অন্যদিকে, সেবার মান বৃদ্ধি, জনমানুষের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দেওয়াসহ পেশাদার মনোভাব বজায় রেখে সামনের দিনে কাজ করার তাগিদ দেওয়া হয় শীর্ষ কর্তাদের পক্ষ থেকে।

 

 

নির্বাচন যত ঘনিয়ে আসছে, রাজনৈতিক অস্থিরতার শঙ্কাও তত বাড়ছে। ফলে নির্বাচনী বছরে পুলিশ বাহিনীর ভূমিকা কেমন হবে, তা নিয়েও জনমনে রয়েছে নানা আলোচনা। তবে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, রাজনৈতিক অস্থিরতা ও নির্বাচন ঘিরে পুলিশের ঊর্ধ্বতন মহল থেকে পুলিশের ভূমিকা কী থাকবে, সে বিয়য়ে সুনির্দিষ্ট কোনো নির্দেশনা নেই। পুলিশ সদস্যের জন্য নেই নতুন কোনো বার্তা।

 

 

তারা আরও বলছেন, নিয়মিত কাজের অংশ হিসেবেই পালন করা হয়েছে এবারের পুলিশ সপ্তাহ। দেশের সংঘাতময় রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও নির্বাচনের বছরে এখনো পুলিশের বিশেষ কোনো নির্দেশনা নেই। তবে রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও নির্বাচন ঘিরে কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা যেন না হয়, তেমনটাই চায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।