অনন্য ফ্যাশনে মেসির স্ত্রী রোকুজ্জো


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ১৭, ২০২৩, ১২:৩১ অপরাহ্ণ /
অনন্য ফ্যাশনে মেসির স্ত্রী রোকুজ্জো

ক্রাইম ট্রেস ডেস্ক : মডেল ও সাবেক ডেন্টাল স্টুডেন্ট আন্তোনেল্লা রোকুজ্জো। লিওনেল মেসিকে বিয়ের আগে থেকেই আর্জেন্টিনায় জনপ্রিয়। মেসির মতোই আর্জেন্টিনার তৃতীয় বৃহত্তম শহর রোজারিওতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন তিনি। পাঁচ বছর বয়স থেকেই বার্সেলোনা তারকাকে চেনেন তিনি। নিয়মিত দেখা করতেন দুজন। ২০০৭ সালে নিজেদের মধ্যে বন্ধন শক্তিশালী হয়েছিল। কিন্তু ততদিন রোকুজ্জো রীতিমতো ফ্যাশন আইকন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিশেষভাবে সক্রিয় তিনি।

২০১৬ সালের নভেম্বরে আর্জেন্টিনার ফ্যাশন লেবেল রিকি সারকানির সঙ্গে মডেলিং চুক্তি স্বাক্ষর করে আইকন তকমা মজবুত করেন। ২০১৭ সালের ৩০ জুন ‘শতাব্দীর সেরা বিয়ে’তে নিজেদের বন্ধন দৃঢ় করেন এ দুই তারকা। বিয়ের পরই রোকুজ্জোর পরিচয় ‘মডেল’ ছাপিয়ে বড় হয়ে ওঠে মেসির স্ত্রী হিসাবেই।

ছোটবেলা থেকেই আর্জেন্টাইন স্টাইলিশ নারীদের অন্যতম রোকুজ্জো। ফ্যাশনে নতুনত্ব চিন্তা মাথা ঘুরিয়ে দেওয়ার মতো। নিজস্ব ফ্যাশন স্টাইলেই পরেছিলেন নিজের বিয়ের পোশাক। রোজা ক্লারার ডিজাইন করা গাউনটিতে জটিল লেসের ব্যবহার তার পছন্দের ধারণা থেকেই। সেই সঙ্গে ছিল সম্পূর্ণ টিউল স্কার্ট। রোকুজ্জোর ম্যাচিং ঘোমটা তাকে করে তুলেছিল অনন্য সুন্দরী।

তার ফ্যাশনসৌন্দর্যের আরেকটি উদাহরণ ২০১৮ সালের কান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে লাল গালিচা লুক। সেদিন তার ফ্লোর-লেংথ গাউন, স্টেটমেন্ট কানের দুল এবং মসৃণ আপডোর উপস্থিত অতিথিদের তাক লাগিয়ে দিয়েছিল।

এ দম্পতির তৃতীয় সন্তান জন্মের আগে গর্ভাবস্থায়ও চটকদার মাতৃত্বের পোশাক সিরিজ উপস্থাপন করেছেন রোকুজ্জো। এ সময় তার ফ্যাশন সেন্স এতই উচ্চমার্গের ছিল যে, স্ট্যান্ডআউট লুক, হাই নেকলাইন এবং বড় হাতার ফর্ম-ফিটিং ম্যাক্সির সঙ্গে হাঁটু সমান বুট ও ফেডোরা টুপির ব্যবহার অসাধারণ লেগেছিল।

সাধারণ একটি রাতের আউটিংও নিজস্ব স্টাইলের ফ্যাশন দিয়ে অসাধারণ করে তোলেন রোকুজ্জো। এ সময় তার অত্যাধুনিক আড়ম্বরপূর্ণ স্যুট-ব্লেজার, চওড়া পায়ের প্যান্ট, স্টেটমেন্ট বেল্ট এবং হিলের ব্যবহারে অনন্য হয়ে ওঠেন তিনি। গ্রীষ্মে সাদা পোশাককেই চটকদার করেন তিনি। সানড্রেসে রাফল হাতা এবং ম্যাচিং হেডব্যান্ডের সঙ্গে মানানসই করেন নিজেকে। তবে লাল পোশাকের ব্যবহারেও কম যান না এ মডেল তারকা। তবে ম্যাচিং হিসাবে এখানে কালোকে যুক্ত করে সাহসের পরিচয় দেন। তবে কালো গাউনেও মার্জিত ও পরিশীলিতভাবে সাজেন তিনি। প্রতিটি সাজেই রুচিশীলতাকে প্রাধান্য দেন রোকুজ্জো। তার পোশাক চটকদার হলেও সৌজন্যবোধের অভাব থাকে না। যেমন, জিন্স যখন পরেন-তখন সাদা টি-শার্টের সঙ্গে যোগ করেন ম্যাচিং ব্লেজার। একই সঙ্গে জুড়ে দেন স্নিকার্স এবং বেসবল ক্যাপ।

ঘরের ভেতরও ফ্যাশনেবল থাকার চেষ্টা করেন রোকুজ্জো। হাইলাইটেড প্রিন্টেড ম্যাক্সির সঙ্গে থাকে হিল এবং ম্যাচিং হেডব্যান্ড। সামগ্রিকভাবে, আন্তোনেল্লা রোকুজ্জোর এক বৈচিত্র্যময়, স্বকীয় এবং অনবদ্য ফ্যাশন সেন্স রয়েছে। মার্জিত গাউন থেকে শুরু করে নৈমিত্তিক জিন্স এবং একটি টি-শার্ট পর্যন্ত তার স্টাইলকে ধারাবাহিকভাবে প্রদর্শন করেন তিনি। অনুষ্ঠান যাই হোক না কেন, তিনি নিজেকে চটকদার এবং আড়ম্বরপূর্ণ দেখাতে ভালোবাসেন।