নাজিরপুরে খেলায় হার-জিতকে কেন্দ্র করে ৮ শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে আহত


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ১৮, ২০২৩, ১২:৩২ অপরাহ্ণ /
নাজিরপুরে খেলায় হার-জিতকে কেন্দ্র করে ৮ শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে আহত

পিরোজপুর প্রতিনিধি : পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলায় শীতকালীন ক্রিকেট খেলায় হার-জিতকে কেন্দ্র করে পরাজিতদের হামলায় ৮ শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদের দাবি, উপজেলা সদরের বালক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী তাদের ওপর এ হামলা চালিয়েছে।

সোমবার (১৬ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় উপজেলা সদরের হাসপাতাল সংলগ্ন বাসস্ট্যান্ডে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে দুইজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আহতরা হলো- উপজেলার বরইবুনিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী মো. মিজানুর রহমান অনিক (১৫), মুন্সী মাহিম, রিফাত হোসেন, রাকিব হোসেন, সাজিদ মাহমুদ, তানভীর হোসেন, মানিক মুন্সী ও রাসেল শেখ।

খেলায় অংশ নেওয়া বালক বিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষার্থীর কাছে হামলার তথ্য জানতে চাইলে তারা কেউই এ ব্যাপারে কোনো তথ্য দিতে পারেনি। অভিযুক্তদের নাম সঠিক করে নির্ধারিত করতে না পারায় তাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. অসিত কুমার মিস্ত্রী বলেন, আহতদের শরীরে ক্ষত না থাকলেও তাদের অবস্থা গুরুতর। এদের মধ্যে অনিক ও মাহিমকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনায় পাঠানো হয়েছে।

হামলায় আহত রিফাত হোসেন জানায়, ওই দিন উপজেলা সদরের শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত শীতকালীন ক্রিকেট খেলার সেমি ফাইনালে উপজেলা সদরের সরকারি বালক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে অংশ নেয় তারা। এসময় সরকারি বালক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাদের পরাজয় নিশ্চিত ভেবে মাঠে বিভিন্নভাবে হুমকি দেয়। সেমি ফাইনালে তাদের সঙ্গে ও পরে ফাইনালে বাবুরহাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সঙ্গে বরইবুনিয়া জয়ী হয়। খেলা শেষে বাড়ি ফেরার পথে সরকারি বালক বিদ্যালয়ের কিছু ছাত্র সঙ্গে থাকা ক্রিকেট স্ট্যাম্প ও ব্যাট দিয়ে তাদের বেদম মারধর করে।

বরইবুনিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এসএম নজরুল ইসলাম বাবুল জানান, খেলায় জয়ী হওয়ায় আমাদের ৮ শিক্ষার্থীকে মারধর করে আহত করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হবে। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হুমায়ুন কবির জানান, খবর পেয়ে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়। অভিযোগ পেলে মামলা নেওয়া হবে।