দশমিনায় গ্রামীণ সড়কের বেহাল দশা, ভোগান্তিতে লক্ষাধিক মানুষ


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ২৩, ২০২৩, ৫:৪৫ অপরাহ্ণ /
দশমিনায় গ্রামীণ সড়কের বেহাল দশা, ভোগান্তিতে লক্ষাধিক মানুষ

স্টাফ রিপোর্টার, দশমিনা : পটুয়াখালীর দশমিনায় পাতারচর-চরঘুর্নী সংযোগের একমাত্র সড়কটির একাংশ ভেঙে বড় ধরনের গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। এতে এ অঞ্চলের মানুষের চলাচলে ঝুঁকি তৈরি হয়েছে। রোজই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যানচলাচল, স্কুলগামী-কলেজগামী শিক্ষার্থীসহ পথচারিরা সড়কটি ব্যবহার করছেন। এমন অবহেলায় পড়ে থাকলে কিছু দিনের মধ্যে সড়কটি নদীগর্ভে হারিয়ে যাওয়াও আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

জানা যায়, ২০১৭-২০১৮ সালে উপজেলা এলজিইডি এক কিলোমিটার পাকা সড়ক নির্মাণ করেন। এটি উপজেলার একমাত্র নদী বেষ্টিত চরবোরহান ইউনিয়নসহ পাতারচর ও চরঘুর্নী এলাকায় যাতায়াতের একমাত্র সড়ক পথ। রণগোপালদী ইউনিয়ন ছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মানুষ কাজের জন্য সড়কটি ব্যবহার করে থাকে। সড়কটি ভেঙে যাওয়ায় এতে যানবাহন চলাচল করতে পারছে না।

উপজেলার রণগোপালদী ইউনিয়নের স্থানীয় বাসিন্দা ও ৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো: অধুদ মাতব্বর বলেন, ভেঙে যাওয়া সড়কটিতে গর্তের কারণে কোনো যানবাহন চলাচল করতে পারছে না। সড়কের দুই পাশে যানবাহন রেখে যাত্রীদেরকে চলাচল করতে হয়। সড়কটি সংস্কার করা না হলে এপার-ওপার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে।

রনগোপালদী ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সভাপতি বশির খান বলেন, ভেঙে যাওয়া সড়কটি নিজেদের অর্থায়নে মাটি কেটে ভরাট করে দিয়েছি। কিন্তু বর্তমানে সেখানে ভাঙন ধরে ধীরে ধীরে বড় গর্তের সৃষ্টি হচ্ছে। এতে এলাকাবাসীসহ সাধারণ যাত্রীরা ভোগান্তির সম্মুখীন হচ্ছে। বিগত ৩ বছর আগে ঘূর্নীঝড় আম্ফান ও স্লুইজগেট দিয়ে নেমে যাওয়া পানির চাপে সড়কটিতে বার বার গর্ত সৃষ্টি হয়।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী মো: মকবুল হোসেন জানান, সড়কটিতে গর্তের ব্যাপারে অতি শিগগির খোঁজ-খবর নিয়ে চলতি বছরেই সংস্কার করা হবে।