‘ইউক্রেনে পুড়বে পশ্চিমা ট্যাংক’


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : জানুয়ারি ২৬, ২০২৩, ১২:৩৪ অপরাহ্ণ /
‘ইউক্রেনে পুড়বে পশ্চিমা ট্যাংক’

ক্রাইম ট্রেস ডেস্ক : ইউক্রেনে পশ্চিমাদের ট্যাংক পৌঁছানোমাত্রই তা পুড়িয়ে দেবে শক্তিধর রাশিয়া। কিয়েভ মিত্ররা ট্যাংক পাঠানোর ঘোষণার পর বুধবার আবারও কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছে ক্রেমলিন।

ক্রেমলিন মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ জানান, ‘প্রযুক্তিগতভাবেও এটি একটি ব্যর্থ পরিকল্পনা। এই দামি ট্যাংকগুলো অন্য সবকিছুর মতো নিমিষেই জ্বালিয়ে-পুড়িয়ে দেওয়া হবে।’

ক্রেমলিন জানায়, ইউক্রেনে ট্যাঙ্ক সরবরাহ করলে তাতে বাস্তবতার কোনো পরিবর্তন ঘটবে না। বরং ‘কিয়েভ রাশিয়াকে হারাবে’ বলে পশ্চিমারা যে ভ্রমের মধ্যে আছে তার জন্য অনুশোচনা করতে হবে।

বুধবার যুক্তরাষ্ট্রে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আনাতোলি আন্তোনভ টেলিগ্রামে জানান, ওয়াশিংটনের কিয়েভে আব্রামস ট্যাঙ্কের সরবরাহের অর্থ মস্কোর বিরুদ্ধে আরেকটি ভয়ংকর উসকানি। এটা স্পষ্ট যে, ওয়াশিংটন উদ্দেশ্যমূলকভাবে আমাদের কৌশলগত পরাজয় দেখতে চায়।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র যদি ‘প্রতিরক্ষামূলক অস্ত্রের’ যুক্তি দিয়ে ট্যাঙ্ক সরবরাহ করার সিদ্ধান্ত নেয় তবে এই ধরনের পদক্ষেপ কাজে আসবে না। এটি রাশিয়ান ফেডারেশনের বিরুদ্ধে ভয়ংকর উসকানি হবে।’

এক সপ্তাহ ধরে বার্লিন-ওয়াশিংটন দরকষাকষির পর বুধবার জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎজ অবশেষে লেপার্ড-২ দিতে রাজি হয়েছেন। শর্ত মেনে যুক্তরাষ্ট্রও দেবে আব্রামস ট্যাংক।

এছাড়া পোল্যান্ড ও ফিনল্যান্ডের মতো দেশগুলোকে ট্যাংক পাঠাতেও অনুমতি দিয়েছে লেপার্ডের নির্মাতা দেশ জার্মানি। মার্কিন কর্মকর্তারা গণমাধ্যমে জানান, যুক্তরাষ্ট্র আগামী মাসে ইউক্রেনে প্রায় ৩০টি এম১ আব্রামস সরবরাহ করতে পারে।

স্পিগেল মিডিয়া আউটলেটের তথ্য অনুসারে, জার্মানি তার সেনাবাহিনী ‘বুন্দেসওয়েরের’ স্টকে থাকা কমপক্ষে ১৪টি লেপার্ড-টুর একটি ব্রিগেড সরবরাহ করবে। ঠিক কতগুলো ট্যাংক পাঠানো হবে জার্মান সরকার এই ব্যাপারে এখনো কোনো ঘোষণা দেননি।

ন্যাটো সদস্য নরওয়ে ইউক্রেনে জার্মান-তৈরি লিওপার্ড ২ ট্যাঙ্ক পাঠাবে কিনা তা বিবেচনা করছে। মঙ্গলবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছে অসলোভিত্তিক সংবাদপত্র আফটেনপোস্টেন এবং দাগেনস নায়েরিংস্লিভ। দেশটিতে থাকা ৩৬টি ‘লেপার্ড-২’ এর মধ্যে ৪ থেকে ৮টি ইউক্রেনে সরবরাহ করা যেতে পারে।