ম্যাচ হারলেও মোস্তাফিজের প্রশংসায় ওয়ার্নার


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : এপ্রিল ১২, ২০২৩, ১১:৩৯ পূর্বাহ্ণ /
ম্যাচ হারলেও মোস্তাফিজের প্রশংসায় ওয়ার্নার

ক্রাইম ট্রেস ডেস্ক : টানা তিন ম্যাচে মাঠের বাইরে থাকলেও অবশেষে দিল্লি ক্যাপিটালসের একাদশে জায়গা পেলেন টাইগার পেসার মোস্তাফিজুর রহমান। তবে তার ফেরার ম্যাচেও চলমান ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএলে) হারের বৃত্তে আটকে থাকা দিল্লি সুফল পায়নি। টানা চার ম্যাচেই হার দেখেছে তারা।

মঙ্গলবার রাতে মোস্তাফিজের প্রথম স্পেল ভালো হলেও শেষ ওভারের কয়েকটি বল সেটিকে ম্লান করে দেয়। তবে ম্যাচশেষে টাইগার পেসার মোস্তাফিজের প্রশংসা করেছেন দিল্লির অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারের কণ্ঠে।

আইপিএলের ১৬তম আসরে দিল্লির ডাগআউট একেবারে রথী-মহারথীতে ভরপুর। ভারতীয় ক্রিকেটের মহারাজা সৌরভ গাঙ্গুলী থেকে শুরু করে অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক রিকি পন্টিং কিংবা হাল আমলে ক্রিকেটকে গুডবাই বলা আরেক বিশ্বজয়ী শেন ওয়াটসন। সবাই আছেন দিল্লিতে। তবু চতুর্থ ম্যাচশেষে দিল্লির ভাগ্য অপরিবর্তিতই থেকে গেল।

ম্যাচশেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে ওয়ার্নার বলেন, আজ আমরা হেরেছি ঠিক, তবে ছেলেরা দুর্দান্ত ছিল। দুটি বল বাজে হয়েছে সেখানেই আমরা ম্যাচটা হেরে গেলাম। এর আগে আমরা ম্যাচে ফিরেছিলাম তাদের বোলিং নৈপুণ্যে। এনরিখ নরকিয়া বিশ্বমানের বোলার, আমরা যেমনটা আশা করেছিলাম তেমনই। মোস্তাফিজও তাই।

স্পিন অলরাউন্ডার অক্ষর প্যাটেলের প্রশংসা করে এই বাঁহাতি ওপেনার বলেন, আগের তিন ম্যাচের তুলনায় এই ম্যাচে অনেক ইতিবাচক কিছু ঘটেছে বলে মনে করি। তবে আমাদের এত দ্রুত উইকেট হারালে চলবে না। অক্ষরের চার নম্বরে ব্যাট করা উচিত। কেননা ওই আমাদের সংগ্রহটাকে বড় করেছে।

এর আগে মঙ্গলবার দিল্লির অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামে শুরুতে ব্যাট করতে নেমে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৭২ রান করে ওয়ার্নার বাহিনী। ধীরগতির ইনিংসে অজি ব্যাটার ওয়ার্নার ৪৭ বলে ৫১ রান এবং প্যাটেলের ২৫ বলে ৫৪ রানের ঝড়ো ইনিংস ছাড়া কোনো ব্যাটারই আলো ছড়াতে পারেননি। জবাব দিতে নেমে রোহিতের ফর্মে ফেরার দিনে ৬ উইকেটের জয় পায় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। রোহিতের ৪৫ বলে ৬৫ এবং তিলক ভার্মার ২৯ বলে ৪১ রান তাদের লক্ষ্যকে সহজ করে তোলে।

ব্যাটিংয়ের ন্যায় বলেও সফল দিল্লির প্যাটেল। তবে তিনি উইকেটের দেখা পাননি। অন্যদিকে দলটির তিন পেসারই ছিলেন বেশ খরুচে। ৪ ওভারে ৩৮ রান দিয়ে ১ উইকেট নেন মোস্তাফিজ। ২ উইকেট পেলেও মুকেশ কুমার ২ ওভারে ১৫ গড়ে রান দিয়েছেন। দলের প্রধান বোলার এনরিখ নরকিয়াও সফল ছিলেন না, ৪ ওভারে ৩৫ রান দেওয়া এই প্রোটিয়া পেসার কোনো উইকেট পাননি।