বরিশালে নানা আয়োজনে ১৪৩০ বর্ষবরণের প্রস্তুতি


Barisal Crime Trace -FF প্রকাশের সময় : এপ্রিল ১২, ২০২৩, ৩:২৮ অপরাহ্ণ /
বরিশালে নানা আয়োজনে ১৪৩০ বর্ষবরণের প্রস্তুতি

শামীম আহমেদ, বরিশাল : আর মাত্র একদিন পরই বাঙ্গালীর প্রাণের উৎসব পয়েলা বৈশাখ ১৪৩০ এগিয়ে আসছে। বাঙালির নিজস্ব জাতিসত্তার অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার অন্যতম উৎসব বৈশাখ বর্ষ বরণকে ঘিরে গ্রাম থেকে শহর সর্বোত্রই চলছে নানান আয়োজনের প্রস্তুতি। বাংলা বছরের প্রথম দিনে বৈশাখ বরণেই থাকছে মঙ্গল কামনায় শোভাযাত্রার আয়োজন,

পাশাপাশি আয়োজন করা হচ্ছে বৈশাখ মেলা ও লোকজ সংস্কৃতি প্রদর্শনী,চিত্রাংকন প্রতিযোগীতা। মঙ্গল শোভাযাত্রার আয়োজন নিয়ে বরিশালে দিন-রাত ব্যস্ততম সময় পার করছে চারুকলা-উদিচীসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের সংগঠক-কর্মী ও শিল্পীরা। আবহমান বাংলার সংস্কৃতির বিভিন্ন চিত্র ফুটিয়ে তুলতেই তাদের এ ব্যস্ততা।

চারুকলা বরিশালের ৩২ তম আয়োজনে আগাম সকল প্রস্ততি চলছে বরিশাল নগরের বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়কস্থ তাদের অস্থায়ী কার্যালয় ও সিটি কলেজ প্রাঙ্গনে। সেখানে বসে চারকলার ছাত্র-ছাত্রী, সংগঠক ও শিল্পীরা নতুন করে তৈরী করছেন কৃত্তিম বাঘ, টাট্টু ঘোড়া, পাখি। তৈরি হচ্ছে বাঁশি বাদক রাখালের ভাষ্কর্য, লোকচিত্র, মুখোশ, রাখি ও মুকুট। মঙ্গল শোভাযাত্রা ১৪৩০ আয়োজনের সমন্বয়ক চন্দ্র শেখর রায় বাবুল ও দূর্জয় সিংক বলেন, “বরিষ ধরা- মাঝে শান্তির বারি” এই শ্লোগানে এবারের বৈশাখ উৎসবের আয়োজন।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে পহেলা বৈশাখ সকাল ৮ টায় বজ্রমোহন বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে জাতীয় সংঙ্গীত,মঙ্গলগীত,বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা ও গুনীজণীজন সম্মাননা,রাখি বন্ধন সহ চারুকলা ও উদীচী শিল্পগোষ্ঠির যৌথ আয়োজনের মঙ্গল শোভাযাত্রার উদ্ধোধন করবেন বরিশাল সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। তিনি বলেন, আশাকরি নারী-পুরুষ, তরুণ-তরুণী, শিশু থেকে বৃদ্ধ পর্যন্ত বর্ষবরনে সামিল হবেন। বর্ণময় এই মঙ্গল শোভাযাত্রায় উদীচী শিল্পগোষ্ঠী প্রতিবছরের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে এবারেও আয়োজন করে চলছে নানান অনুষ্ঠানের।

বাঙালি সংস্কৃতির বিভিন্ন উপাদান নিয়ে সৃষ্টিশীল কাজ করা বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী বরিশাল জেলা সংসদ বিগত ৩৯ বছরের ধারাবাহিকতায় এবছরও বাঙালির প্রাণের উৎসব বাংলা নববর্ষ-১৪৩০ বরন উপলক্ষে ব্রজমোহন বিদ্যালয় মাঠে ব্যপক কর্মসূচি গ্রহন করেছে। উদীচী বরিশাল জেলা সংসদের সভাপতি সাংবাদিক সাইফুর রহমান মিরন প্রতিনিধি শামীম আহমেদকে জানান, অনুষ্ঠান মালার মধ্যে ১লা বৈশাখ সকাল সাড়ে ৬টায় প্রভাতী অনুষ্ঠান। প্রভাতী অনুষ্ঠানের পরপরই রয়েছে রাখি বন্ধন, ঢাক উৎসব ও ৮টায় সার্বজনীন মঙ্গল শোভাযাত্রা।

মঙ্গল শোভাযাত্রা ব্রজমোহন বিদ্যালয় মাঠ থেকে শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন প্রদক্ষিণ শেষে সদররোডস্থ অশ্বিনী কুমার টাউন হলে শেষ হবে। সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা। পাশাপাশি ১ থেকে ৩ বৈশাখ পর্যন্ত ব্রজমোহন বিদ্যালয় (বিএম স্কুল) প্রাঙ্গনে আয়োজন করা হয়েছে ৩৯ তম উদীচী বৈশাখী মেলার। যেখানে প্রতিদিন সন্ধ্যায় আয়োজন করা হবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। এছাড়া বর্ষবরণ উপলক্ষ্যে সাংস্কৃতিক সংগঠন বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করবে।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। পাশাপাশি বরিশাল জেলার প্রতিটি উপজেলাই গ্রামীন পর্যায়ে রয়েছে গ্রামীন বৈশাখী মেলার আয়োজন। বর্ষবরণ অনুষ্ঠানকে ঘিরে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা প্রদানের জন্য সকল ধরনের প্রস্তুতি ইতি মধ্যে গ্রহন করেছে বরিশাল মেট্রোপলিটন ও জেলা পুলিশ।

অন্যদিকে বর্তমানে নদীতে ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ থাকার কারনে বাজরে পাওয়া যাচ্ছে অধিকাংশ সাগর ও মায়ানমারের ইলিশ তার উপরে আকাশ ছোয়া দাম পাশাপাশি রমযান মাস থাকার কারনে থাকছে না অন্যন্যাবারের মত সকালে পান্তা ইলিশ।