পিরোজপুরে বাকিতে সিগারেট না বেচায় পিটুনিতে আহত দোকানির মৃত্যু


Mahadi Hasan প্রকাশের সময় : জুন ৬, ২০২৪, ২:৩১ অপরাহ্ণ /
পিরোজপুরে বাকিতে সিগারেট না বেচায় পিটুনিতে আহত দোকানির মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল: পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় তুচ্ছ ঘটনার জেরে ক্রেতার পিটুনিতে আহত চা–দোকানি ফারুক ভূঁইয়ার মৃত্যু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়।

মৃত ফারুক ভূঁইয়া একই উপজেলার চড়কগাছিয়া গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন। পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চড়কগাছিয়া গ্রামের আবাসন প্রকল্পের পাশে ফারুক ভূঁইয়ার একটি চায়ের দোকান আছে। গত ৩১ মে রাতে একই গ্রামের শাওন হাওলাদার, শাহিন ও মো. সুমন নামের তিন তরুণ ওই দোকানির কাছে বাকিতে সিগারেট চান। ওই সময় তাঁদের কাছে আগের পাওনা টাকা চান ফারুক। এ কথায় ওই তিন তরুণ ক্ষিপ্ত হয়ে রড ও লাঠি দিয়ে ফারুককে পেটাতে থাকেন। এতে তাঁর দুই পা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়।

স্থানীয় লোকজন ফারুক ভূঁইয়াকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। আজ সকালে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনার বিষয়ে ফারুক ভূঁইয়ার বড় জামাতা ইদ্রিস হাওলাদার বলেন, ‘ওই তিন তরুণের কাছে আমার শ্বশুর টাকা পান। এরপর তাঁরা আবার বাকিতে সিগারেট চাওয়ায় আমার শ্বশুর আগের পাওনা টাকা পরিশোধ করতে বলেন। এ নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডার একপর্যায়ে ওরা আমার শ্বশুরকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন। গত মঙ্গলবার এ ঘটনায় আমার শাশুড়ি বাদী হয়ে তিনজনের বিরুদ্ধে স্থানীয় থানায় মামলা করেছেন।’

মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম। তিনি বলেন, ফারুককে মারধরের ঘটনায় মামলা হয়েছিল। আদালতের অনুমতি নিয়ে এবার সেটি হত্যা মামলায় রূপান্তরিত হবে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।