চুরির টাকা নিয়ে বিরোধে স্কুলছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা


Barisal Crime Trace -HR প্রকাশের সময় : জুন ৭, ২০২৪, ১:২৬ পূর্বাহ্ণ /
চুরির টাকা নিয়ে বিরোধে স্কুলছাত্রকে কুপিয়ে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল: লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলায় চোরাই মোটরসাইকেল বিক্রির টাকা নিয়ে বিরোধের জেরে এক স্কুলছাত্রকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মধু চন্দ্র (১৯) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৬ জুন) দুপুরে উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের বড়াবাড়ি রুহানী নগরে একটি নালা থেকে স্কুলছাত্র ফরহাদ আলীর (১৬) বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার মধু চন্দ্র ভাদাই ইউনিয়নের বড়াবাড়ি রুহানী নগর এলাকার মৃত সুবাশ চন্দ্রের ছেলে। আর মৃত স্কুলছাত্র ফরহাদ একই ইউনিয়নের শিব বাড়ি এলাকার গরু ব্যবসায়ী শাহাজান আলীর ছেলে এবং সারপুকুর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র।

পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তার মধু চন্দ্র শিশুকালে বাবাকে হারিয়েছেন। পরে মায়ের অন্যত্র বিয়ে হয়েছে। এরপর চাচার বাড়িতে বড় হন তিনি। কিশোর বয়স থেকে সে নারায়ণগঞ্জের একটি কারখানায় কাজ করেন। মধু মাঝেমধ্যে বাড়ি এসে বিভিন্ন জায়গায় চুরি করে আবার ঢাকায় চলে যায়। সম্প্রতি একটি মোটরসাইকেল নিয়ে বাড়ি ফিরে মধু। কয়েক দিন আগে সেই মোটরসাইকেলটি পাশে শিব বাড়ি গ্রামের স্কুলছাত্র ফরহাদের কাছে বিক্রি করেন। ওই মোটরসাইকেলের টাকা লেনদেন নিয়ে বিরোধ ছিল নিহত স্কুল ছাত্রের সঙ্গে।

স্থানীয়রা জানান, ছোট বেলায় বেশ ভালোই ছিল মধু চন্দ্র। নারায়ণগঞ্জে কাজে গিয়ে সে উচ্ছৃঙ্খল হয়ে উঠেছে। এদিকে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ওই মোটরসাইকেল নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফেরেনি স্কুলছাত্র ফরহাদ। ছেলের সন্ধান না পেয়ে আদিতমারী থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন ফরহাদের বাবা।

ওই জিডির সূত্র ধরে অনুসন্ধানে নামে পুলিশ। প্রথম দিকে ফরহাদের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি মধু চন্দ্রের কাছে পাওয়া যায়। এ সময় তাকে আটক করা হয়। পরে বৃহস্পতিবার দুপুরে মধুর দেওয়া তথ্যমতে তার বাড়ি থেকে অস্ত্র ও পাশের নালা থেকে ফরহাদের বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।

আদিতমারী থানার ওসি (তদন্ত) রফিকুল ইসলাম বলেন, ফরহাদকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করার কথা স্বীকার করেছেন মধু। তবে মোটরসাইকেলটি এখনও উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। নেশাগ্রস্ত অবস্থায় হত্যাকাণ্ড ঘটায় মধু। ঘটনায় আরও কেউ জড়িত আছে কি না তদন্ত করা হচ্ছে। নিখোঁজ জিডি হত্যা মামলায় রূপান্তর করে মধুকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে বলেও তিনি জানান।