দশমিনায় যুবকের মরদেহ উদ্ধার, পরিবারের দাবি, স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে আত্মহত্যা


Mahadi Hasan প্রকাশের সময় : জুন ৭, ২০২৪, ৫:৫২ অপরাহ্ণ /
দশমিনায় যুবকের মরদেহ উদ্ধার, পরিবারের দাবি, স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল: পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলায় এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পরিবারের দাবি, স্ত্রীর সঙ্গে অভিমান করে গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যা করেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার হাজীর হাট বাজারের দোকানে এ ঘটনা ঘটে। মৃতের নাম মো. মিলন মৃধা (৩৪)। তিনি উপজেলার দশমিনা ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড হাজীর হাটের সেলিম মৃধার ছেলে।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ১২ বছর আগে বিয়ে করেন মিলন মৃধা। কয়েক বছর ধরে তাঁদের মধ্যে কলহ চলছিল। গতকাল দুপুরেও স্ত্রীর সঙ্গে তাঁর ঝগড়া হয়। পরে হাজীর হাট লঞ্চঘাটে দোকানে গিয়ে গ্যাস ট্যাবলেট খান।

পাশের দোকানদার ও রাস্তার লোকজন তাঁকে ছটফট করতে দেখে এগিয়ে এলে তাঁদের কাছে গ্যাস ট্যাবলেট খাওয়ার বিষয়টি জানান। স্থানীয়রা তাঁকে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মিঠুন চন্দ্র হাওলাদার উন্নত চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠান। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাতে মারা যান তিনি। পরে মরদেহ পটুয়াখালী থানায় নেওয়া হয়।

মৃতের বড় ভাই পলু মৃধা আজ শুক্রবার বলেন, ‘মিলন হাজীর হাট বাজারে দোকান করত। বাজার থেকে ফোন করে জানানো হয় সে গ্যাস ট্যাবলেট খেয়েছে। ঘটনাস্থলে গিয়ে দশমিনা হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে পটুয়াখালী হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাই। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে মারা যায় সে।

পটুয়াখালী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জসিম উদ্দিন জানান, বৃহস্পতিবার রতে খবর পেয়ে মরদেহ হাসপাতাল থানায় আনা হয়েছে। শুক্রবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়। ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হবে।