মেসির ১ সপ্তাহের পিএসজি ক্যারিয়ার

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত আগস্ট ১৮ বুধবার, ২০২১, ০১:০৪ অপরাহ্ণ
মেসির ১ সপ্তাহের পিএসজি ক্যারিয়ার

খেলা ডেস্ক ।। প্রায় এক সপ্তাহ কেটে গেল লিওনেল মেসি পিএসজিতে এসেছেন, এখনও মাঠে নামা হয়নি বার্সেলোনা কিংবদন্তির।

এই এক সপ্তাহের পিএসজি ক্যারিয়ারে তবে কী কী করেছেন তিনি? সংবাদ সম্মেলন, বার্বিকিউ পার্টি আর বাসা খুঁজেই অতিবাহিত হয়েছে তার সময়। সেরেছেন টুকিটাকি আরও কিছু কাজও।

গত ১০ আগস্ট বার্সেলোনা থেকে প্যারিস শহরে এসে পা রেখেছিলেন মেসি। এরপর শুরুতেই নাসের আল খেলাইফির সঙ্গে একই টেবিলে বসে দুই বছরের চুক্তিতে সই করেন।

সেখানে থাকে এক বছর চুক্তির মেয়াদ বাড়িয়ে নেওয়ার শর্তও। এরপর হোটেল, হোটেল থেকে বাসা খোঁজা, বন্ধুদের সঙ্গে পার্টি আর পিএসজিতে প্রেজেন্টেশন দিয়েই শেষ হয়েছে তার এক সপ্তাহ। এই সময়ে তিনি পিএসজির সঙ্গে অনুশীলনও করেছেন।

ক্রীড়া বিষয়ক গণমাধ্যম ইএসপিএন বলছে, পিএসজির সঙ্গে অনুশীলনের অংশ হিসেবে ম্যাচ খেলেছেন মেসি। নিজ দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে দুটি ভাগে ভাগ হয়ে খেলা ম্যাচে জয় পেয়েছেন মেসিরাই। তার সঙ্গে ছিলেন কেইলর নাভাস, নেইমার জুনিয়র, অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া, হুলিয়ান ড্রাক্সলার ও কিলিয়ান এমবাপ্পে। হারা দলে ছিলেন মার্কুইনহোস, আশরাফ হাকিমি, মাওরো ইকার্দি ও মার্কো ভেরাত্তি।

গণমাধ্যমে তোলপাড়ের পর মেসি পিএসজিতে এসে এলাহি কাণ্ডের জন্ম দিয়েছেন। যে কারণে কয়েক দফায় পিএসজিতে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হতে হয়েছে তাকে। প্রথম সংবাদ সম্মেলন মেসি বলেন, ‌এখানে নেইমার আছে। আমাদের লক্ষ্য এক। আমরা অনেক বছর আলাদা ছিলাম, কিন্তু আমার মনে হয় আমরা একসঙ্গে খেললেই ভালো হয় ব্যাপারটা। আমাদের লক্ষ্য থাকবে শিরোপা জেতা।‌

বার্সেলোনায় প্রায় দুই দশকের ক্যারিয়ার বিধায় মেসির সন্তানেরা বেড়ে উঠেছেন কাতালোনিয়ার আলো-বাতাসে। এবার মেসি প্যারিসে আসায় তার সন্তানদের জন্যও উপযুক্ত বাসা খুঁজতে হচ্ছে। প্

রথম প্রথম তিনি এসে উঠেছিলেন রয়্যাল মোনচেয়াও হোটেলে। প্যারিসের আঙিনায় পা রাখার পর তাকে দেখতে হুমরি খেয়ে পড়ছিলেন দর্শকরাও।

এরপর পিএসজির আরও নতুন চার প্লেয়ার সার্জিও রামোস, জর্জিনিও উইনাল্ডাম, জিয়ানলুইজি দোন্নারুমা ও আশরাফ হাকিমির সঙ্গে প্রেজেন্টেশন অনুষ্ঠান হয়ে তাকে নিয়ে।

মেসির বার্সেলোনার সঙ্গে আনুষ্ঠানিক সম্পর্ক শেষ হয়ে গিয়েছিল গত জুনের শেষেই। এরপর নতুন চুক্তির সম্ভাবনাও শেষ হয়ে যায়। তখন থেকেই শুরু হয় আর্জেন্টাইন এই তারকাকে দলে ভেড়ানোর প্রতিযোগিতা। অবশেষে আসে সেই মাহেন্দ্রক্ষণ। অপেক্ষার অবসান ঘটে প্যারিসবাসীর। ১০ আগস্ট বিকেলেই মেসি পৌঁছান প্যারিসে।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]