বেতাগীতে ডায়রিয়ায় আরও একজনের মৃত্যু

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত এপ্রিল ১৯ সোমবার, ২০২১, ০১:৩৭ অপরাহ্ণ
বেতাগীতে ডায়রিয়ায় আরও একজনের মৃত্যু

মনমথ মল্লিক,বেতাগী বরগুনা ।। করোনার প্রাদুর্ভাবের মধ্যেই বরগুনার বেতাগী উপজেলায় হঠাৎ দেখা দিয়েছে ডায়রিয়ার প্রকোপ। ইতিমধ্যে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে উপজেলার বুড়ামজুমদার ইউনিয়নে আহম্মদ হাওলাদার (১০০) নামে নতুন করে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে।

 

এর আগে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি অবস্থায় শনিবার নুরুল ইসলাম (৭০) নামে একজনের মৃত্যু হয়।

এ নিয়ে গত দুই দিনে দুইজন ডায়রিয়ায় মৃত্যুবরণ করেন।
বেতাগী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, গত তিন দিন ধরে হঠাৎ ডায়রিয়ার প্রকোপ বৃদ্ধি পেয়েছে।

এ সময় মোট ১০০ জন ডায়রিয়া রোগী স্বাস্থ্য কমেেপ্লক্সে ভর্তি হয়েছেন। চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫৫ জন। বর্তমানে ভর্তি আছেন ৪৫ জন।

প্রতিদিনই গড়ে ১৫-২০ জন রোগী ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে আসছেন। এদের মধ্যে অধিকাংশই নারী ও শিশু। হাসপাতালে অতিরিক্ত ডায়রিয়া রোগীর চাপ থাকায় অনেকেই বেড না পেয়ে হাসপাতালে ফ্লোরে বাধ্য হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

হাসপাতালে খাবার স্যালাইনের ও কলেরা স্যালাইনের সংকট না থাকলেও পরিস্থিতি ক্রমান্বয়ে বাড়তে থাকলে সংকট দেখা দিতে পারে বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসকরা।

বরগুনার বেতাগী উপজেলার দেড় লক্ষাধিক মানুষের চিকিৎসার একটি বড় কেন্দ্র বেতাগী উপজেলা স্বাস্থ্য কমেেপ্লক্স। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ আতঙ্কে অনেকেই যখন হাসপাতাল বিমুখ ঠিক তখনই করোনার প্রাদুর্ভাবের মধ্যে হঠাৎ শুরু হয়েছে ডায়েরিয়ার প্রকোপ।

অনেকে করোনা আতঙ্কে হাসপাতালে না এসে চিকিৎসা নিচ্ছেন বাড়িতে বসে। করোনার ভিতর ডায়েরিয়া রোগীর সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা  ভুক্তভোগী কয়েকজন জানান, সরকারি হাসপাতালে মানুষ আসে বিনা পয়সায় চিকিৎসা নিতে।

এখানে অন্য কোন ওষুধ পাওয়া না গেলেও কলেরা স্যালাইন আর খাবার স্যালাইনটি পাওয়া যেতো। এখন সেটি পর্যাপ্ত পরিমানে না পাওয়ায় ডায়রিয়া আক্রান্ত হয়ে ভর্তি রোগীরা চরম দুর্ভোগে পড়েছেন।

সামর্থবানরা অনেকেই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ছেড়ে ভর্তি হচ্ছেন বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে। কিন্তু চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে নিম্ন আয়ের মানুষগুলোকে।

বেতাগী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তেন মং বলেন, ঋতু পরিবর্তন, অবাধে খালের পানি ব্যাবহার, গরমে নষ্ট খাবার খাওয়ার কারণে ডায়রিয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে।

হাসপাতালে যেটুকু অ্যান্টিবায়োটিক ও কলেরা স্যালাইনের কোন সংকট ছিল তা বিকল্প উপায়ে সমাধান করা হয়েছে।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]