বরিশাল-ঢাকা লঞ্চ সার্ভিস, কাঠ বডি থেকে স্টিল বডি

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত আগস্ট ২৮ শনিবার, ২০২১, ০৮:৪৫ পূর্বাহ্ণ
বরিশাল-ঢাকা লঞ্চ সার্ভিস, কাঠ বডি থেকে স্টিল বডি

ডেস্ক সংবাদঃ নদীমাতৃক বাংলাদেশের সর্ব দক্ষিনের জেলা ( ১৭ জেলা সমৃদ্ধ ) বরিশাল, নদী বহুল বরিশাল । হেনরী বেভারিজের তথ্য মতে, নদীগুলো প্রায় সবই উত্তর-দক্ষিন মুখি এবং অসংখ্য ছোট নদী ও খাল জালের মত বিস্তৃত বরিশালে ।

তিনি এটাও লিখেছেন, ইংরেজ আমলে প্রথম সড়ক নির্মান হয় বাকেরগঞ্জ থেকে শিবপুর পর্যন্ত ৫ মাইল এবং গোলাবাড়ী থেকে কোটার হাট পর্যন্ত ।

বভারিজ আরো লিখেছেন, ১৮০১ সালে জেলা সদর বরিশালে স্থানান্তরের পর সড়ক নির্মিত হয়, বরিশাল-খাজাঞ্চির হাট ( দপদপিয়া ) পর্যন্ত ৪ মাইল, বরিশাল-মাধবপাশা, ঝালকাঠী, নলছিটি, বাকেরগঞ্জ এবং বরিশাল-তালতলী ।

এছাড়া লাখুটিয়া হয়ে বরিশাল – গৌরনদী সড়কটি নির্মান করেন জমিদার রামচন্দ্র রায়, এটি জন চলাচলের উপযোগী তবে গরু বা ঘোড়ার গাড়ী চলতে পারতনা ।

এই যখন অবস্থা তখন তো নৌযানের উপরই যাতায়াত ব্যবস্থা নির্ভরশীল ছিল তা বলাই বাহুল্য । সেক্ষেত্রে গয়না নৌকা থেকে যান্ত্রিক জলযান কবে চালু হয়েছে সেটা বলার সুযোগ নাই।

প্রথম দিকে কাঠের তৈরী ছোট ছোট লঞ্চ গুলো অভ্যন্তরীন রুটে চলাচল করার পর ১৯৬৬/৬৭ সালের দিকে বরিশাল – ঢাকা কাঠের তৈরী দোতলা লঞ্চ প্রথম চালু করেন কামাল চৌধুরী।

তিনি তার দেড়তলা শাহারুন্নেছা লঞ্চটিকে দোতলায় রূপান্তর করে বরিশাল-ঢাকা রুট চালু করেন। তার পরই একই রুটে চলে শাহেনশাহ্, ইলিয়টগঞ্জ, মারী ।

কামাল চৌধুরী নিয়ে আসেন সৈয়দ এবং কালাম চেয়ারম্যানের পিন্টু ।
বরিশাল – ঢাকা প্রথম স্টিলবডি লঞ্চ BIWTC’ র পাকওয়াটার ( স্বাধীনতার পর বেঙ্গল ওয়াটার ) ও হাইস্পিড এবং জজ মিয়ার রাজহংস ।

এ ধারাবাহিকতায় ক্রমান্বয়ে বরিশাল-ঢাকা লঞ্চের আকার ও প্রকার বাড়তে থাকে আর চলে আসে জাহাজ থেকে লঞ্চে রূপান্তরিত এম ভি সামাদ যেটি একসময় কীর্তনখোলায় ডুবে গেছে।

এসময় থেকে আরো আসে এম ভি সাগর, এ্যাটলাস সান, এ্যাটলাস স্টার, এম ভি সাঈদ, কাজল, মধুমতি, দ্বীপরাজ, পারাবাত, টিপু, বিউটি অব বিক্রমপুর, এম ভি কামাল, ফারহান, তাকওয়া, কালাম খান, সুন্দর বন, সুরভী, কীর্তন খোলা, কুয়াকাটা, এ্যাডভেঞ্চার, গ্রীন লাইন প্রভৃতি বৃহদাকারের বিলাসবহুল লঞ্চ গুলো।

বর্তমানে বরিশাল – ঢাকা রুটের লঞ্চ গুলো আকারে এবং বিলাসবহুলতার প্রতিযোগিতায় অবতীর্ণ।

সূত্রঃ স্মৃতি এবং শ্রুত




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]