ব্যাংকের ভেতর থেকে মুক্তিযোদ্ধার টাকা চুরি

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত সেপ্টেম্বর ২ বৃহস্পতিবার, ২০২১, ০৮:২২ অপরাহ্ণ
ব্যাংকের ভেতর থেকে মুক্তিযোদ্ধার টাকা চুরি

ক্রাইম ট্রেস ডেস্ক: পাবনার ঈশ্বরদীতে ব্যাংক থেকে মুক্তার হোসেন নামে এক বীর মুক্তিযোদ্ধার পাঁচ লাখ টাকা চুরি হয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার (০২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সোনালী ব্যাংকের ঈশ্বরদী শাখায় এ ঘটনা ঘটে। মুক্তার হোসেন রেলওয়ের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

 

জানা গেছে, দুপুর ১টার দিকে ঈশ্বরদী পৌর এলাকার মশুড়িয়াপাড়ার বাসিন্দা বীর মুক্তিযোদ্ধা মুক্তার হোসেন ঈশ্বরদী পোস্ট অফিস থেকে ১০ লাখ টাকা উত্তোলন করেন। সেখান থেকে তিনি রিকশাযোগে সোনালী ব্যাংকের ঈশ্বরদী শাখায় টাকা জমা দিতে যান। কাউন্টারের পাশের টেবিলে দাঁড়িয়ে তিনি জমা স্লিপ লিখছিলেন। এ সময় টেবিলের ওপর একটি কালো ব্যাগে টাকা ছিল। এরপর তিনি জমা স্লিপসহ ব্যাগ নিয়ে কাউন্টারে টাকা জমা দেওয়ার সময় দেখতে পান তার ব্যাগে পাঁচ লাখ টাকার বান্ডিলটি নেই।

 

বীর মুক্তিযোদ্ধা মুক্তার হোসেন বলেন, টাকাগুলো আমার পেনশনের। এখন আমি নিরুপায় হয়ে গেলাম। ব্যাংক থেকে এভাবে টাকা চুরির ঘটনায় খুবই অবাক হচ্ছি। এ ঘটনার সঠিক ও সুষ্ঠু তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানাই।

 

ব্যাংকে উপস্থিত সোহেল রানা, শাকিল আহমেদসহ বেশ কয়েকজন গ্রাহক টাকা চুরির ঘটনায় বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন, কয়েকদিন পর পরই এই শাখা থেকে এভাবে গ্রাহকের টাকা চুরির ঘটনা ঘটে। এটা ব্যাংক কর্তপক্ষের চরম ব্যর্থতা। বার বার এভাবে টাকা চুরির ঘটনায় ব্যাংকের কেউ জড়িত থাকতে পারেন বলেও তারা সন্দেহ প্রকাশ করেন।

 

সোনালী ব্যাংকের ঈশ্বরদী শাখার ম্যানেজার সাইদুল ইসলাম বলেন, ব্যাংকের ভেতর থেকে এভাবে গ্রাহকের টাকা চুরির ঘটনায় আমরা মর্মাহত। সিসি ক্যামেরা দেখে বিষয়টি থানা পুলিশকে খতিয়ে দেখার কথা বলেছি।

 

ঈশ্বরদীর আমবাগান পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ শহিদুর রহমান জানান, ব্যাংক থেকে টাকা চুরির খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ব্যাংকের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করেছেন। এতে দেখা গেছে এক ব্যক্তি কৌশলে টাকা নিয়ে চম্পট দিয়েছেন। তাকে শনাক্তের চেষ্টা চলছে। তবে তার সঙ্গে আরও কয়েকজন জড়িত আছে বলে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে ধারণা করা হচ্ছে।

 

এদিকে ব্যাংক থেকে বীর মুক্তিযোদ্ধার টাকা চুরি ঘটনার খবর পেয়ে ঈশ্বরদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবির ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। তিনি জানান, সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে চোরকে শনাক্তের চেষ্টা চলছে। কিছু দিন পর পরই এভাবে ঈশ্বরদীর সোনালী ব্যাংক শাখা থেকে টাকা চুরির ঘটনায় তিনি ব্যাংক কর্মকর্তাদের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করেন।

 

ঈশ্বরদী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, টাকা চুরির বিষয়ে আমরা অভিযোগ পেয়েছি। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে চোরকে শনাক্তের চেষ্টা চলছে।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]