কুমিল্লায় কুরআন অবমাননার ঘটনায় চাঁদপুরে সংঘর্ষ, নিহত ৩

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত অক্টোবর ১৪ বৃহস্পতিবার, ২০২১, ০৯:৩৪ পূর্বাহ্ণ
কুমিল্লায় কুরআন অবমাননার ঘটনায় চাঁদপুরে সংঘর্ষ, নিহত ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক : কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে পবিত্র কুরআন শরীফ অবমাননার অভিযোগে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে পুলিশ ও স্থানীয়দের মধ্যে সংঘর্ষে পুলিশ, সাংবাদিক ও স্থানীয়সহ কমপক্ষে ৬০ জন আহত হয়েছে।

স্থানীয়ভাবে সংঘর্ষে ৩ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেলেও পুলিশ-প্রশাসন বিষয়টি নিশ্চিত নয় বলে জানিয়েছে।

কুমিল্লা নগরীর একটি পূজামণ্ডপে হনুমানের কোলে পবিত্র কুরআন শরীফ রাখার ঘটনাকে কেন্দ্র করে বুধবার এশার নামাজের পর হাজীগঞ্জে পুলিশ ও বিক্ষুব্ধ জনতার মাঝে এ সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ফাঁকা গুলি ও টিয়ার শেল ছোড়ে। এ সময় ঘটনাস্থলেই নিহত হয় ৩ জন। সংঘর্ষে পুলিশ, সাংবাদিক ও বিক্ষুব্ধ জনতাসহ প্রায় ৬০ জন কমবেশি আহত হয়েছে।

হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, নিহতরা হলেন- হাজীগঞ্জ উপজেলার বড়কুল ইউনিয়নের রায়চোঁ গ্রামের আলামিন (১৮), উপজেলার রান্ধুনীমুড়া সেকান্দার আলী বেপারীবাড়ির ফজলুল হকের একমাত্র ছেলে ইয়াছিন হোসেন হৃদয় (১৫) ও বাবলু (২৮) নামের এক ব্যক্তি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বুধবার এশার নামাজের পর হাজীগঞ্জ বিশ্বরোড চৌরাস্তা এলাকা থেকে স্থানীয়রা বিক্ষোভ মিছিল বের করেন।

বিক্ষোভ মিছিলটি হাজীগঞ্জ বাজারের প্রধান সড়কে দু’বার প্রদক্ষিণ শেষে ৩য় বার বাজারের পূর্ব দিকে যাওয়ার পথে হঠাৎ মিছিল থেকে লক্ষ্মী নারায়ণ জিউর আখড়া (ত্রীনয়নী) পূজামণ্ডপে হামলা চালানো হয়। পরে পুলিশ ও মুসল্লিদের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়।

জানা যায়, মঙ্গলবার রাতে কুমিল্লা নগরীর নানুয়ার দিঘিরপাড়ের একটি দুর্গাপূজার মণ্ডপে হনুমান মূর্তির কোলে পবিত্র কোরআন শরিফ রাখার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এ নিয়ে বুধবার সন্ধ্যা থেকে বিক্ষুব্ধ মানুষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিক্ষোভ মিছিলের ডাক দেয়।

পরবর্তীতে সন্ধ্যার পর হাজীগঞ্জ বিশ্বরোড চৌরাস্তায় জড়ো হয়ে মিছিল করেন। পরে পূজামণ্ডপে ভাঙচুর চালালে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ টিয়ারশেল ও ফাঁকা গুলি ছোড়ে।

এতে ৩ জন নিহত ও সাংবাদিক ও পুলিশসহ প্রায় ৬০ জন সাধারণ মানুষ আহত হয়। বর্তমানে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

হাজীগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোমেনা আক্তার আহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছেন। নিহতের বিষয়ে তিনি নিশ্চিত নন বলে জানান।

চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ জানান, আহত কয়েকজনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ১৭-১৮ জন পুলিশ আহত হয়েছে। তবে মৃত্যুর বিষয়টি তিনি নিশ্চিত করেননি।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]