ঝালকাঠির ৩ সাংবাদিক নেতার বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলার প্রতিবাদ জানিয়েছে বিভিন্ন সংগঠন

Barisal Crime Trace -HR
প্রকাশিত এপ্রিল ২৭ মঙ্গলবার, ২০২১, ১০:৪৭ অপরাহ্ণ
ঝালকাঠির ৩ সাংবাদিক নেতার বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলার প্রতিবাদ জানিয়েছে বিভিন্ন সংগঠন
ঝালকাঠি প্রতিনিধি: ঝালকাঠিতে ৩ সাংবাদিক নেতার বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলার প্রতিবাদ জানিয়েছে বিভিন্ন সংগঠন।
সোমবার এক বিবৃতিতে ঝালকাঠি রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি আসিফ মানিক ও সাধারণ সম্পাদক একেএম মঞ্জরুল হক, ঝালকাঠি জেলা বিএম‌এস‌এফ সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম বাচ্চু ও ঝালকাঠি প্রেস ইউনিটির সভাপতি তুষার বড়াল বলেন,
“বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম বিএমএসএফ ঝালকাঠি জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক প্রভাষক রিয়াজুল ইসলাম বাচ্চু, ঝালকাঠিতে করোনায় সম্মুখ যোদ্ধা হিসেবে পরিচিত মানবিক সাংবাদিক নামে খ্যাত ঝালকাঠি রিপোর্টার্স ইউনিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এইচ এম রিয়াজ খান অশ্রু ও ঝালকাটি রিপোর্টার্স
ইউনিটির সভাপতি আসিফ সিকদার মানিকের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।
অবিলম্বে এই ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে। অন্যথায় সাংবাদিক সমাজ বিভিন্ন আন্দোলন কর্মসূচি পালন করতে বাধ্য হবে।”
উল্লেখ্য গত মঙ্গলবার রাতে গাবখান গ্রামের এক নারী উদ্দেশ্য প্রনোদিত হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১০/৩০ এবং দঃ-বিধির ৩২৩ ও ৫০৬ ধারায়   ঝালকাঠি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন যাহার নম্বর- ১১ ।
ঝালকাঠিতে হোটেল বয় থেকে সাংবাদিক বনে ওঠা শাওন মোল্লা নামের কথিত সাংবাদিক দৈনিক মাতৃজগত পত্রিকার সম্পাদকের নাম ও ছবি ব্যবহার করে বিভিন্ন জেলা থেকে প্রতিনিধি নিয়োগের নামে অর্থ আত্মসাৎ করে আসার অভিযোগের ভিত্তিতে সংবাদ প্রকাশিত হলে
উক্ত সংবাদ প্রকাশের জের ধরে কথিত সাংবাদিক শাওন মোল্লা ক্ষিপ্ত হয়ে স্থানীয় কুচক্রি মহলের সহযোগীতায় তারই ৩৮ বছর বয়স্ক আপন বোনের ( তিন সন্তানের জননী ) সাংবাদিক আসিফ সিকদার মানিক, সাংবাদিক রিয়াজ খান অশ্রু, সাংবাদিক বাচ্চু হাওলাদারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।
তদন্ত ছাড়া এরকম একটি মিথ্যা মামলা থানায় এজাহারভুক্ত হ‌ওয়া ক্ষোভ প্রকাশ করেছে ঝালকাঠি রিপোর্টার্স ইউনিটির, ঝালকাঠি জেলা বিএম‌এস‌এফ ও ঝালকাঠি প্রেস ইউনিটির নেতৃবৃন্দ।
এ সকল সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার পুর্বক মামলা দিয়ে হয়রানিকারীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।
নেতৃবৃন্দ এই জঘন্য হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে সাংবাদিকদের স্বাধীনভাবে কাজের পরিবেশ সৃষ্টির আহ্বান জানান।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আনছারুল হক বলেন, ওই নারীর অভিযোগ মঙ্গলবার রাতে এফআইআর হিসেবে রেকর্ড করে আমাকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে । তদন্তের দায়িত্ব পেয়ে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সাক্ষীদের সাথে কথা বলেছি।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]