চরফ্যাশনের নীলকমলের স্বামীর ভিটা রক্ষা করতে প্রাণ গেল বৃদ্ধার 

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত এপ্রিল ২৯ বৃহস্পতিবার, ২০২১, ০৬:৫১ অপরাহ্ণ
চরফ্যাশনের নীলকমলের স্বামীর ভিটা রক্ষা করতে প্রাণ গেল বৃদ্ধার 

চরফ্যাশন( ভোলা) প্রতিনিধি :: চরফ্যাসনের দুলারহাট থানার নীলকমল ইউনিয়নে জমি জবর দখলকারীদের মারধরে আনোয়ারা(৬৫)নামের এক বৃদ্ধার মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে প্রতিবেশী মফিজল ইসলাম মঞ্জু গংদের বিরুদ্ধে।

 

মঙ্গলবার রাতে আর্থিক সংকটে দীর্ঘ ১মাস চিকিৎসার অভাবে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে ওই ইউনিয়নের চর নুরুল আমিন গ্রামের ২নং ওয়ার্ডের তার নিজ বাড়িতে স্বামীর ভিটায় মঙ্গলবার  তার মৃত্যু হয়।

 

নিহত আনোয়ারা একই গ্রামের মৃত জয়নাল আবেদিনের স্ত্রী। বুধবার দুলারহাট থানা পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তাস্তর করেন।

 

স্থানীয় ও মামলার সূত্রে জানা যায,  গত ২৯ মার্চ স্বামীর ভিটে জবর দখল করে প্রতিপক্ষরা ঘর নির্মাণ করতে গেলে তিনি বাধা দেয়। দখলকারীদের মারধরে তিনি গুরুতর আহত হন।

 

প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে চরফ্যাসন হাসপাতালে নিলে দুই দিন চিকিৎসা শেষে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশালের শেবাচিমে  রেফার করেন। আর্থিক সংকটে চিকিৎসা না নিয়েই বাড়ি ফিরেন বৃদ্ধা আনোয়ারা।

 

১৪ এপ্রিল বৃদ্ধার ছেলে বারেক মারধরের ঘটনায় বাদী হয়ে ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ইউসুব ওরফে পানি ইউসুব সহ ৯ জনকে আসামী করে দুলারহাট থানায় মামলা দায়ের করেন।

 

মামলার পর আসামিরা  প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও গ্রেপ্তার করছে না পুলিশ। স্থানীয় এক গ্রাম্য চিকিৎসক ইউসুফের  নেতৃত্বে এসব ঘটনা ঘটছে বলে এমন অভিযোগ করেন নিহতের পরিবার ও স্থানীয় লোকজন ।

 

ছেলে বারেক অভিযোগ করেন, তার বৃদ্ধা মা ওই ইউনিয়নের চর নুরুল আমিন মৌজায় তার বাবার মৃত্যুর পর ১০ শতাংশ জমির মালিক হন। বাবার মৃত্যুর পর থেকেই তিনি একাই ওই জমিতে বাবার নির্মান করা  ভিটেতে ওই ঘরে বসবাস করতেন।

 

সম্প্রতি তার মায়ের ওয়ারিশি জমির কিছু অংশ স্থানীয় আবু তাহেরের কাছে বিক্রি করেন। জমিতে তিনি ভোগ দখলে আছেন।

 

কয়েক বছর যাবত আমার চাচাতো ভাইয়ের ওয়ারিশ মফিজল, জুয়েল, নিরব, স্থানীয় ইউপি সদস্য ইউসুব (পানি ইউসুব), মোঃ শাহাজাহান. শাহাবুদ্দিন, শিপন, সুরমা বেগম. বাদশা ওই জমির মালিকানা দাবী করে উচ্ছেদের হুমকি দিয়ে আসছিলেন। খরিদা মালিক আবু তাহেরের কাছে তার মায়ের বিক্রিত জমি দখল বুঝিয়ে দিতে বাধা দেন। এনিয়ে বিরোধ চলমান আছে।

 

ঘটনার দিন ২৯ মার্চ তার মায়ের ঘর মেরামতের কাজ করতে গেলে মফিজল ইসলাম মঞ্জু গংরা ওই ঘর ভিটে জোরপূর্বক জবর দখলের চেষ্টা করেন। এসময় তিনি বাড়িতে ছিলেন না।

 

তার মা আনোয়ারা তার বসত ভিটে দখলে বাধা দিলে মফিজল ইসলাম মঞ্জু গংরা তার ওপর অর্তকিত হামলা চালিয়ে মা আনোয়ারাকে মারধর করে গুরুতর আহত করেন।

 

প্রতিবেশীদের কাছ থেকে তিনি খবর পেয়ে বৃদ্ধা মাকে উদ্ধার করে চরফ্যাসন হাসপাতালে নিয়ে এলে দুদিন চিকিৎসার পর তাকে উন্নত চিকিৎসার শেরে বাংলা মেডিকেল হাসপাতালে রেফার করেন।

এদিক, বৃদ্ধার মৃত্যুর খবরে প্রতিপক্ষের মফিজল ইসলাম সহ অপর অভিযুক্তরা আত্মগোপনে থাকায় তাদের বক্তব্য জানা যায়নি। দুলারহাট থানার ওসি মো. মোরাদ হোসেন জানান. বৃদ্ধাকে মারধরের ঘটনায় ইতিপুর্বে একটি মামলা দায়ের করা হয়। নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্থান্ত করা হয়েছে। ময়না তদন্ত রির্পোট পেলে ওই মামলার সাথে বিভিন্ন ধারা যুক্ত করা হবে।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃbarishalcrimetrace@gmail.com