বাঁশের আড়ায় ঝুলছিল তামান্নার লাশ : চিঠিতে লিখে গেলো আমার স্বামী যেন আরেকটা বিয়ে করে

Barisal Crime Trace -HR
প্রকাশিত নভেম্বর ৩০ মঙ্গলবার, ২০২১, ০২:০৯ অপরাহ্ণ
বাঁশের আড়ায় ঝুলছিল তামান্নার লাশ : চিঠিতে লিখে গেলো আমার স্বামী যেন আরেকটা বিয়ে করে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বাঁশের আড়ায় ঝুলছিল তামান্না আক্তার হাওয়া নামে এক গৃহবধূর লাশ। পাশেই পড়েছিল সুইসাইড নোট।

 

 

পুলিশের ধারণা, মৃত্যুর ঠিক আগ মুহূর্তে নিজের শেষ কথাগুলো লিখে যান তিনি। গতকাল সোমবার রাতে নেত্রকোণার দুর্গাপুরের বুরুঙ্গা গ্রাম থেকে এই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়।

 

সাদা কাগজের উপর নীল কালিতে লেখা, আমি নিজের ইচ্ছেতেই মরছি, আমার স্বামীর কোনো অন্যায় নাই। আমি মরলে যেন আমার স্বামী আরেকটা বিয়ে করে। আমি খারাপ মানুষ, তাই মরে যাচ্ছি।

 

কাগজটিতে আরও লিখেছিল, আমি মরলে আমার সব জিনিসপত্র আমার বাড়িতে যেন দিয়ে দেওয়া হয়। সবার প্রতি আমার সালাম ‘আসসালামু আলাইকুম’ আমাকে মাফ করে দিও সবাই। ইতি হাওয়া।

 

মৃত হাওয়া উপজেলার চন্ডিগড়ের সাতাশি গ্রামের ফজরুল করিমের মেয়ে। গত তিন মাস আগে বুরুঙ্গা গ্রাম আলম মিয়ার ছোট ছেলে হাসান মিয়ার সঙ্গে বিয়ে হয় তার। তবে লাশের সুইসাইড নোট পেলেও মৃত্যুর প্রকৃত কারণ অনুসন্ধানে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

এ ব্যাপারে দুর্গাপুর থানার উপপরিদর্শক আনিসুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ‘আমরা লাশের পাশ থেকে একটি সুইসাইড নোট পেয়েছি। ইতোমধ্যে এই ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধানে চেষ্টা চলছে।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]