ববির শিক্ষার্থীকে মারধরঃ স্থানীয়দের বাড়িঘরে হামলা

Barisal Crime Trace -HR
প্রকাশিত জানুয়ারি ১১ মঙ্গলবার, ২০২২, ১১:০৬ অপরাহ্ণ
ববির শিক্ষার্থীকে মারধরঃ স্থানীয়দের বাড়িঘরে হামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ।। বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র নারী শিক্ষার্থীকে স্বামীসহ মারধরের প্রতিবাদে বরিশাল-কুয়াকাটা সড়ক অবরোধ করেছে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) শিক্ষার্থীরা।

 

পরে প্রশাসনের আশ্বাসে তারা অবরোধ তুলে নেয়। এর আগে ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা অভিযুক্ত লিটন মেম্বার ও জয়ের বাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়।

 

মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ৯টার দিকে বরিশাল-কুয়াকাটা সড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীরা।

 

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. খোরশেদ আলম বলেন, শিক্ষার্থীদের বুঝিয়ে নিয়ে আসা হয়েছে। তাদের কথা আমরা শুনেছি। বিষয়টি নিয়ে প্রশাসন কাজ করছে। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

 

 

তিনি বলেন, লিটন মেম্বার জনপ্রতিনিধি সুলভ আচরণ করেননি বিধায় এই ঘটনার উদ্ভব হয়েছে।

 

শিক্ষাদের অভিযোগ, বরিশাল সদর উপজেলার চরকাউয়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড মেম্বার সাইদুল আলম লিটনের অনুসারী জয় নামের যুবক বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের প্রায়ই উত্যক্ত করে।

 

এর ধারাবাহিকতায় আজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগের এক ছাত্রী তার স্বামীকে নিয়ে ঘুরতে গেলে, তাকে আটক করে। পরে জয়ের নেতৃত্বে তাদের মারধর করা হয়।

 

 

ঘটনা জানাজানি হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত সেতুর নিচের, অভিযুক্ত লিটন মেম্বার ও জয়ের বাড়িতে ভাঙচুর চালায়।

 

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রফিকুল ইসলাম ইয়ামিন জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশেই আনন্দ বাজার এলাকায় এক শিক্ষার্থী তার স্বামীকে নিয়ে ঘুরতে যান।

 

এ সময় তাদের সঙ্গে অশোভন আচরণ করে মেম্বার লিটনের অনুসারী জয়সহ কয়েকজন। এরপর ছাত্রী ও তার স্বামীকে মারধর করে তারা। বিষয়টি ক্যাম্পাসে ছড়িয়ে পড়লে শিক্ষার্থীরা সেখানে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে।

 

সাইদুল আলম লিটনের পিতা আলতাফ হোসেন হাওলাদার বলেন, আমি হাটতে চলতে পারি না। দুই/তিনশো ছেলে এসে আমার ঘর ভাঙচুর করেছে। আমাকে ও আমার স্ত্রীকে মারধর করেছে।

লিটনের মা নুরজাহান বেগম বলেন, কিছু লোক এসে প্রথমে জিজ্ঞেস করে গেছে এটা লিটন মেম্বারের বাড়ি কিনা। আমরা তাদের সঙ্গে কথা বলার জন্য লাইট জ্বালালে সঙ্গে সঙ্গে ভাঙচুর শুরু করে।

জাহিদ হোসেন জয়ের মা জোছনা বলেন, আমার ছেলে ঘটনার সঙ্গে জড়িত না। তারপরও এসে আমার ঘর বাড়ি ভেঙে লুটপাট করে নিয়ে গেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এর আগেও আমার বাড়িতে হামলা করেছে তারা। এখন আবার এসে লুটপাট করে গেছে। আমরা এলাকাবাসী জিম্মি হয়ে আছি ছাত্রদের কাছে।

 

 




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]