সড়কের খানা-খন্দ ও গর্তে চরম দুর্ভোগে জনসাধারণ

Barisal Crime Trace -FF
প্রকাশিত জানুয়ারি ২৮ শুক্রবার, ২০২২, ০৪:২৮ অপরাহ্ণ
সড়কের খানা-খন্দ ও গর্তে চরম দুর্ভোগে জনসাধারণ

স্টাফ রিপোর্টার, ঝালকাঠি: ঝালকাঠির রাজাপুরের উপজেলা সদর ইউনিয়নের ছোট কৈবর্তখালি গ্রামের ৫ নং ওয়ার্ডের ফকিরহাট থেকে নতুন হাট পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার দীর্ঘ জনবহুল পিচঢাল রাস্তাটির সমস্ত যায়গা জুড়ে খানা-খন্দ ও গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় ৬ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ পাঁচ গ্রামের মানুষ দীর্ঘদিন ধরে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।

দীর্ঘ ৬ বছরেও মেরামতের কোনো উদ্যোগ না নেওয়ায় এমন পরিস্থিতি হয়েছে।
সরেজমিনে গেলে স্থানীয় মো. আজিজুল হাওলাদার ও রুহুল আমিন হাওলাদারসহ একাধিক ভুক্তভোগী জানান, খানা-খন্দ সৃষ্টি হওয়া ওই সড়কটি মেরামত না করায় ছোট কৈবর্তখালি, চর গালুয়া, নিজ গালুয়া ও জীবনদাসকাঠিসহ পাঁচটি গ্রামের প্রায় চার হাজার মানুষ কয়েক বছর ধরে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন।

২০১৬ সালে একবার মেরামত করা হয়েছিল। তারপর এখন পর্যন্ত মেরামতের কোনো উদ্যোগ না নেওয়ায় স্থানীয়দের চরম দুভোর্গের ভেতর দিয়ে যেতে হচ্ছে।

এলাকার নুর মোহাম্মদ সিকদার, জহিরুল ইসলাম ও নুরুজ্জামান মোল্লাসহ অনেকেই জানান, সড়কটি দিয়ে মোটর সাইকেল, রিক্সা, ইজিবাইক ও অ্যাম্বুলেন্সসহ যানবাহন চলাচলে সমস্যা হচ্ছে। এর ফলে ধান, চালসহ বাজারে নেওয়া-আনার বোঝা এবং জরুরি চিকিৎসা পেতে রোগীদের নিয়ে এলাকাবাসীর চরম ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

এছাড়াও ৩৫ নং ছোট কৈবর্তখালি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, আনোয়ারা খাতুন বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, সুলতান আহম্মেদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, জিকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়, জীবনদাসকাঠি দাখিল মাদ্রাসা ও জীবনদাসকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষার্থীদের অধিকাংশই ওই সড়কটি দিয়ে যাওয়া-আসা করছেন।

রাস্তা ভেঙে গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় যে কোনো সময় রিক্সা, ভ্যান ও ইজিবাইক উল্টে গিয়ে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। রাস্তাটি দ্রুত মেরামত করে চলাচলের উপযোগী করার জন্য এলাকাবাসী সংশ্লিষ্টদের আশুহস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এলজিইডি উপজেলা প্রকৌশলী মো. গোলাম মোস্তফা জানান, এ সড়কটির বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে তিনি জানেন না। ওই রাস্তাটি সম্পর্কে খোঁজখবর নিয়ে সড়কটি সংষ্কারের প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]