ঘূর্ণিঝড় ইয়াস এর প্রভাবে পিরোজপুরের চার উপজেলা পানির নিচে

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত মে ২৭ বৃহস্পতিবার, ২০২১, ০৯:৪৬ পূর্বাহ্ণ
ঘূর্ণিঝড় ইয়াস এর প্রভাবে পিরোজপুরের চার উপজেলা পানির নিচে

পিরোজপুর প্রতিনিধিঃ ঘূর্ণিঝড় ইয়াস এর প্রভাবে পিরোজপুর সদর ও বিভিন্ন উপজেলার নিন্মাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। বুধবার মঠবাড়িয়া, ভান্ডারিয়া, ইন্দুরকানী, কাউখালীসহ প্রায় অধিকাংশ উপজেলার শতাধিক গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।

 

স্থানীয়রা জানায়, মঙ্গলবার রাত থেকেই বৃষ্টির সাথে সাথে পানি বৃদ্ধি পেলে নদীর তীরবর্তী এলাকাগুলো তলিয়ে যায়। তবে মঠবাড়িয়ার মাঝেরচর, বড়মাছুয়া, সাপলেজা, ভান্ডারিয়ার তেলীখালী ইউনিয়নের অধিকাংশ এলাকাই প্লাবিত হয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার লোকজনদের আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নিতে তৎপর ছিল প্রশাসন। পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার মাঝের চরে মঙ্গলবার দুপুরে একটি বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে পানি প্রবেশ করছে।

এছাড়া ভরা পূর্নিমা ও জোয়ারের পানির প্রবল চাপে দুপুরে ইউনিয়ন পরিষদের নির্মিত বেড়ীবাঁধের দুটি পয়েন্ট সম্পূর্ন ভেসে গেছে। গত আম্পানের সময়ও এ বাঁধের প্রচুর ক্ষতি হয়। এছাড়া পিরোজপুর সদর উপজেলাসহ কয়েকটি উপজেলায় অতিরিক্ত পানিতে অনেক মাছের ঘের ভেসে গেছে।

 

পিরোজপুর বন্যা নিয়ন্ত্রন কন্ট্রোল রুম সূত্র আরও জানায়, বাঁধের আরও দুর্বল কিছু অংশে ফাটল দেখা দেওয়ায় বেরিবাঁধটি এখন হুমকির মুখে রয়েছে। জেলা কন্ট্রোল রুমের দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসার (ডিআরও) মো. মোজাহারুল হক জানান, বাঁধের দুটি অংশের অন্তত ৬০-৭০ ফুট বিধ্বস্ত হয়েছে। এছাড়া, প্রায় ১০-১২টি মৎস্য ঘের এবং বিভিন্ন ধরনের সবজির ফসল ভেসে গেছে। বাঁধ ভাঙ্গার খবর পেয়ে বেলা ২টার দিকে মঠবাড়িয়া উপজেলার প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) মিলন তালুকদারসহ আরও কয়েকজন দুর্যোগ মাথায় নিয়ে বলেশ্বর নদী পার হয়ে মাঝের চরে পৌছেছেন।

 

পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক ও জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আবু আলী মো. সাজ্জাদ হোসেন জানান, ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোকাবেলায় জেলার ৫৩টি ইউনিয়নে ১ কোটি ৩২ লাখ ৫৩ হাজার টাকা অর্থ সহায়তা দেয়া হয়েছে।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]