ভাতার অপেক্ষায় এক যুগ পার! ১৬ টাকা নিয়ে ইউএনও’র অফিসে বৃদ্ধা

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত মে ২৭ বৃহস্পতিবার, ২০২১, ১০:৫৯ পূর্বাহ্ণ
ভাতার অপেক্ষায় এক যুগ পার! ১৬ টাকা নিয়ে ইউএনও’র অফিসে বৃদ্ধা

জানা-অজানা ডেস্কঃ লাঠিতে ভর করে ইউএনওর অফিসে আসেন ৭৩ বছর বয়সী জবেদা বেগম। আরেক হাতের ঝুলি থেকে ১৬ টাকা বের করে টেবিলের ওপর রেখে ইউএনও’র কাছে দাবি করলেন, তার একটি বয়স্ক ভাতার কার্ড চাই।

জবেদা বেগম জানান, চেয়ারম্যান-মেম্বাররা ভাতার কার্ডের জন্য তার কাছে পাঁচ হাজার টাকা দাবি করেছে। সে টাকা দিতে না পারায় ১১ বছরে বিভিন্নজনের হাতে পায়ে ধরেও তিনি কোনো সুফল পাননি। ইউএনও যেন ১৬ টাকার বিনিময়ে ভাতার কার্ডটা করে দেন এটাই তার কামনা।

জবেদার এলোমেলো শব্দের কথাশুনে হতবাক হয়ে যান বরিশালের গৌরনদী উপজেলার গেরাকুল গ্রামের ইউএনও মো. কাওছার হোসেন। জবেদা বেগমের বাড়িতে খোঁজ নিয়ে তিনি জানতে পারেন, ওই গ্রামের আলতাফ মল্লিকের স্ত্রী জবেদা বেগম নিতান্তই অসহায়। তার এক ছেলে কাজ করতে পারেন না। আরেক ছেলে বিয়ে করে অন্যত্র থাকেন। প্রায়ই না খেয়ে দিন পার করেন জবেদা।

তাকে সামনে রেখেই ইউএনও কাওছার হোসেন উপজেলা সমাজসেবা অফিসারকে ফোন দিয়ে জবেদা বেগমের জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর ও জন্মতারিখ দিয়ে বয়স্ক ভাতার ব্যবস্থা করার নির্দেশ দেন। দুই মিনিটের মধ্যেই জবেদা বেগমের নাম বয়স্ক ভাতার এমআইএস’এ এন্ট্রি হয়ে যায়।

ইউএনও মো. কাওছার হোসেন বলেন, বয়স্ক ভাতার কার্ড প্রস্তুত হওয়ার পর লোক পাঠিয়ে জবেদা বেগমকে খবর দেয়া হয়। পরবর্তীতে সোমবার তার হাতে কার্ড তুলে দেয়ার পর তিনি যেমন হেসেছেন আবার কেঁদেছেনও। দুঃখি মানুষের হাসি সবচেয়ে যে বেশি সুন্দর হয় জবেদা বেগম তারই প্রমাণ দিয়েছেন বলে ইউএনও কাওছার হোসেন উল্লেখ করেন।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]