বরগুনায় মরা ১০টি হাঁস নিয়ে থানায় মালিক!

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত এপ্রিল ২৩ শুক্রবার, ২০২১, ১২:৩৩ অপরাহ্ণ
বরগুনায় মরা ১০টি হাঁস নিয়ে থানায় মালিক!

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ মরা ১০টি হাঁস নিয়ে থানায় উপস্থিত হলেন ইসাব গাজী বাদল নামের এক ব্যক্তি। তার অভিযোগ প্রতিবেশী রফিক গাজী বাসুডিন খাইয়ে হাঁসগুলো মেরে ফেলেছে।

বৃহস্পতিবার সকালে বরগুনার আমতলী উপজেলার কুকুয়া ইউনিয়নের কৃষ্ণনগর গ্রামে ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

 

জানা গেছে, উপজেলার কৃষ্ণনগর গ্রামের ইসাব গাজী বাদল নামের এক ব্যক্তির ১০টি হাঁস ছিল। ওই হাঁসগুলো নজরে পড়ে প্রতিবেশী রফিক গাজী ও তার লোকজনের। ওই হাঁসগুলোকে মেরে ফেলার পরিকল্পনা নেন রফিক গাজী, ইমরান ও রিয়াজ। বৃহস্পতিবার সকালে ইসাব গাজীর বাড়ির পাশে হাঁস বিশ্রামের জায়গায় রফিক গাজী, ইমরান ও রিয়াজ বাসুডিন দেয়- এমন অভিযোগ ইসাব গাজীর।

 

বৃহস্পতিবার খুব সকালে তার হাঁসগুলো খাঁচা থেকে বের হয়ে ওই নিরাপদ জায়গায় গিয়ে ঘাস খাচ্ছিল। মুহূর্তের মধ্যেই হাসগুলো মাটিতে লুটিয়ে পড়ে মারা যায়। খবর পেয়ে হাঁস মালিক হাঁসগুলো আমতলী থানায় নিয়ে আসেন। এ ঘটনায় আমতলী থানায় ইসাব গাজী লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

 

হাঁস মালিক ইসাব গাজী বাদল অভিযোগ করে বলেন, পরিকল্পিতভাবে রফিক গাজী, ইমরান ও রিয়াজ বাসুডিন দিয়ে আমার হাঁসগুলোকে মেরে ফেলেছে।

 

তিনি আরও বলেন, ওরা গত তিন মাস আগে একইভাবে আমার ১১টি রাজহাঁস এবং গত বছর ৭০টি হাঁস এবং ১৭টি রাজ হাঁস মেরে ফেলেছে। আমি এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি দাবি করছি।

 

তবে রফিক গাজী হাঁস মারার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার জমির ঘাস পচাতে বাসুডিন দিয়েছি।

 

আমতলী থানার ওসি মো. শাহ আলম হাওলাদার বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তসাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]