বরিশালে মাহিন্দ্রা চালককে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে নারীসহ দুই যুবক গ্রেফতার

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত মে ৩ সোমবার, ২০২১, ০৫:২৭ অপরাহ্ণ
বরিশালে মাহিন্দ্রা চালককে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে নারীসহ দুই যুবক গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বরিশালের গৌরনদী উপজেলায় এক মাহিন্দ্রা চালককে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টার অভিযোগে এক নারীসহ দুই যুবকের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ। ওই দুই যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টার মূল পরিকল্পনাকারী ওই নারী আত্মগোপন করায় পুলিশ তাকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

সোমবার (৩ মে) দুপুরে গ্রেফতার দুই যুবককে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতাররা হলেন-উপজেলার দক্ষিণ রামসিদ্ধি গ্রামের সেকেন্দার মৃধার ছেলে আমির মৃধা (৩০) ও বড় কসবা এলাকার আনোয়ার তালুকদারের ছেলে হৃদয় তালুকদার (২০)। আত্মগোপন করা ওই নারীর নাম শাহিনা বেগম। তিনি পার্শ্ববর্তী আগৈলঝাড়া উপজেলার ভাল্লুকশী গ্রামের মাইনুদ্দিন মৃধার স্ত্রী।

গৌরনদী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. তৌহিদুজ্জামান জানান, গৌরনদী মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. শাহজাহানের মোবাইল ফোনে রোববার (২ মে) দুপুরে কল করে এক ব্যক্তি জানান, ভুরঘাটা থেকে ইয়াবা নিয়ে মাহিন্দ্রা চালক নাইম মৃধা ইয়াবা নিয়ে টরকী যাচ্ছেন। তাকে তল্লাশি করলে ইয়াবা পাওয়া যাবে। এমনকি তিনি (তথ্যপ্রদানকারী ব্যক্তি) ওই মাহিন্দ্রায় রয়েছেন। পরে টরকী নীলখোলা এলাকায় মহাসড়কের ওপর ওই মাহিন্দ্রাটিকে থামানোর জন্য সংকেত দেন পুলিশ সদস্যরা। মাহিন্দ্রাটি থামানোর দুই যুবক দ্রুত পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এতে পুলিশের সন্দেহ হয়। তাদের আটক করে দেহ তল্লাশি করে ১০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও জানান, থানায় নিয়ে ওই দুই যুবককে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানান, আগৈলঝাড়া উপজেলার ভাল্লুকশী গ্রামের মাইনুদ্দিন মৃধার স্ত্রী শাহিনা বেগমের সঙ্গে একই গ্রামের মাহিন্দ্রা চালক নাইম মৃধার জমি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। বিরোধ থেকেই নাইম মৃধাকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর পরিকল্পনা করেন শাহিনা বেগম। এরই ধারাবাহিকতায় নাইম মৃধাকে তারা ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা করেন।

এ ঘটনায় শাহিনা বেগমসহ দুই যুবকের বিরুদ্ধে এসআই মো. শাহজাহান বাদী হয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেন। সোমবার দুপুরে দুই যুবককে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। পলাতক শাহিনা বেগমকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান পরিদর্শক মো. তৌহিদুজ্জামান।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]