গরীবের ডাক্তার হতে চায় গৌরনদীর তিনজন মেধাবী শিক্ষার্থী

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত এপ্রিল ৬ মঙ্গলবার, ২০২১, ০১:১৬ অপরাহ্ণ
গরীবের ডাক্তার হতে চায় গৌরনদীর তিনজন মেধাবী শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ এমবিবিএস ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় জেলার গৌরনদী উপজেলার মাহিলাড়া ইউনিয়নের তিনজন মেধাবী শিক্ষার্থী স্থান পেয়েছে।

ভর্তি পরীক্ষায় স্থান পাওয়া শিক্ষার্থীরা হলো-মাহিলাড়া ইউনিয়নের হাপানিয়া গ্রামের আবদুর রহিম হাওলাদারের কন্যা জান্নাতুল ফেরদৌস রাকা, বাঘার গ্রামের মোতালেব আকনের পুত্র মাহামুদ আকন ও পূর্ব বেজহার গ্রামের সুভাষ মন্ডলের পুত্র শুভ মন্ডল। মেধাবী তিন শিক্ষার্থী ডাক্তার হয়ে মাহিলাড়া ইউনিয়নের গরীবের ডাক্তারখ্যাত প্রয়াত চিকিৎসক দাস রনবীরের ন্যায় গ্রামের দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের চিকিৎসা সেবা করতে চান।

জানা গেছে, শিক্ষার্থী জান্নাতুল ফেরদৌস রাকা বরিশাল নগরীর সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় থেকে এসএসসিতে জিপিএ-৫ ও সরকারি বরিশাল মহিলা কলেজ থেকে এইচএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়েছে। পরবর্তীতে এমবিবিএস কোর্সের ভর্র্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে সে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে স্থান পেয়েছে। পরীক্ষার ফলাফলে জাতীয় মেধা তালিকায় সে ১৫৭তম স্থান অর্জন করেছে।

শিক্ষার্থী মাহমুদ আকন এবং শুভ মন্ডল মাহিলাড়া এএন মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসিতে জিপিএ-৫ এবং ঢাকার নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়ে এমবিবিএস কোর্সের ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। এরমধ্যে মাহামুদ আকন রংপুর মেডিক্যাল কলেজে এবং শুভ মন্ডল বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজে স্থান পেয়েছে।

শিক্ষার্থী জান্নাতুল ফেরদৌসের পিতা বিআরডিবি কর্মকর্তা আবদুর রহিম হাওলাদার জানান, তার কন্যার ইচ্ছে সে (রাকা) ডাক্তারী পাশ করে দেশ ও জাতির সেবার পাশাপাশি গ্রামের অসহায় ও দুঃস্থ মানুষের সেবা করবে। অপর দুই শিক্ষার্থীও ডাক্তারী পাশ সম্পন্ন করে আর্তমানবতার সেবায় নিজেদের নিয়োজিত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন।

একই ইউনিয়নের তিনজন মেধাবী শিক্ষার্থী মেডিক্যাল কলেজে ভর্তির সুযোগ পাওয়ায় তাদেরকে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত মাহিলাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সৈকত গুহ পিকলু।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃbarishalcrimetrace@gmail.com