বরিশালে মেয়ের সঙ্গে কথা বলতে না দেয়ায় আত্মহত্যা করেন বাবা!

Barisal Crime Trace
প্রকাশিত এপ্রিল ১৪ বুধবার, ২০২১, ০২:০৪ অপরাহ্ণ
বরিশালে মেয়ের সঙ্গে কথা বলতে না দেয়ায় আত্মহত্যা করেন বাবা!

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ নিজের সন্তানদের কাছে না পেয়ে অভিমানে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন সাগর নামের এক যুবক।

ঘটনার তিনদিন পর ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত সোমবার বেলা ১১টার দিকে মারা যান সেই হতভাগ্য বাবা।

এ ঘটনায় আহত আরও দুজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বরিশাল জেলার আগৈলঝাড়া উপজেলার বাকাল গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

মৃত সাগর ফকির (২৭) উপজেলার বাকাল গ্রামের লিয়াকত ফকিরের ছেলে।

নিহতের সাগরের বাবা বলেন, ‘সাগরের সঙ্গে রাগ করে শিশুকন্যাকে নিয়ে স্ত্রী রাশিদা ছয় মাস আগে তাঁর বাবার বাড়ি মাদারীপুরের খোয়াজপুর টেকেরেহাটে চলে যান। গত ৯ এপ্রিল বিকেলে সাগর তাঁর স্ত্রীকে মোবাইলে মেয়ের সঙ্গে কথা বলতে চান। একইসঙ্গে মেয়েকে নিয়ে স্ত্রীকে ফিরে আসতে বলেন। কিন্তু স্ত্রী ফরিদা বেগম ফিরবে না বলে জানান। এমনকি সাগরকে তাঁর মেয়েদের সঙ্গে কথা বলতেও দেন না।

এদিকে, মেয়ের সঙ্গে কথা বলতে না পারার আক্ষেপে নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন সাগর। তাঁকে বাঁচাতে গেলে আগুনে সাগর ফরিকের মা আমেনা বেগমের দুই হাত এবং চাচাতো ভাই রমজান ফকিরের শরীরের বেশ কিছু অংশ পুড়ে যায়। গুরুতর অসুস্থ সাগর ফকিরকে দ্রুত ঢাকায় নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সোমবার মারা যান।

এছাড়া সাগরের চাচাতো ভাই রমজান ফকিরের শরীরর অবস্থা ভালো না হওয়ায় গতকাল রোববার ঢাকায় পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন লিয়াকত ফকির। তবে আহত সাগরের মা আমেনা বেগম আগৈলঝাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আগৈলঝাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম সরোয়ার জানান, আগুনে দগ্ধ হয়ে মারা যাওয়া সাগর ফকিরের মরদেহের ময়নাতদন্ত ঢাকায় হবে। এ ঘটনায় কেউ অভিযোগ করলে আমরা তদন্ত করে দেখে ব্যবস্থা নেব।




আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি বরিশাল ক্রাইম ট্রেস”কে জানাতে।
ই-মেইল করুনঃ[email protected]